দেশে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে গতকাল সোমবার রাত ১২টা থেকে সব লোকাল, মেইল ও কমিউটার ট্রেন চলাচল বন্ধ করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

২৬ মার্চ থেকে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধের ব্যাপারে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ প্রস্তুতি নিয়েছে। ইতিমধ্যে ট্রেনের সব ধরনের টিকিট বিক্রি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বন্ধ করে দিয়েছে। রেলের পরিচালক (পরিচালন) মো. শফিকুল ইসলাম এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. শামছুজ্জামান আজ মঙ্গলবার সকালে বলেন, গতকাল সরকারের উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, লোকাল, মেইল ও কমিউটার ট্রেন বন্ধ করা হয়েছে। এরপর আন্তনগর ট্রেন সার্ভিস বন্ধ করে দেওয়া হবে।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, গতকাল বিকেলে সরকারি ছুটি ঘোষণার পর কমলাপুর রেলস্টেশনে প্রচণ্ড ভিড় দেখা যায়। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তাৎক্ষণিক রেল চলাচল বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। বলা হয়, যে কাজের জন্য ছুটি, সেটা ব্যাহত হচ্ছে। এরপরই রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ কোনো রকম লিখিত নির্দেশ ছাড়া, দেশের মূল স্টেশনগুলোর নিয়ন্ত্রণকক্ষে ফোন করে রেল চলাচল বন্ধের নির্দেশ দেয়।

করোনাভাইরাসের কারণে একে একে সব বন্ধ হচ্ছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পর ২৬ মার্চ থেকে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি অফিস টানা ১০ দিনের ছুটিতে পড়ছে। এ ছাড়া পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা দিতে আজ থেকে দেশের বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোতে সশস্ত্র বাহিনী নামছে। একই সঙ্গে গণপরিবহন চলাচলও সীমিত থাকবে।

মন্তব্য লিখুন :