করোনায় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট বন্ধ করাকে কেন্দ্র করে কুপিয়ে জখম

করোনাভাইরাস সংক্রামন রোধে ক্রিকেট  টুর্নামেন্ট বন্ধ করতে বলায় ৩ জনকে কুপিয়েছে ছাত্রলীগ নেতা। কক্সবাজারের উখিয়া  উপজেলার জালিয়া পালং ইউনিয়নের সোনায়ছড়ি এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।   

জালিয়াপালং ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি ও উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা নূরুল আবছার নান্নুর নেতৃত্বে এই ঘটনা ঘটানো হয়।   

স্থানিয় এলাকাবাসী সূত্রে  জানা গেছে, সোনাই ছড়ি গ্রামের আলি হোসেনের পুত্র ছাত্রলীগ নেতা নুরুল আবছার নান্নু  করোনার এই দূর্যোগে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর  আয়োজন করে। করোনা সংক্রামনে এই ক্রিকেট টুর্নামেন্ট বন্ধ রাখার জন্য একই এলাকার মোবারক হোসাই ছাত্রলীগ নেতা নান্নুকে অনুরোধ করলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এই সময় নান্নু ক্ষিপ্ত হয়ে মোবারককে মারধর করে। মোবারকের ভাইয়েরা এগিয়ে আসলে ছাত্রলীগ নেতা নান্নুর নেতৃত্বে দেলোয়ার হোসাইন (৩০), মোবারক হোসাইন (২৪) ও তারেক হোসাইন (১৭) কে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে আহত করা হয়।

এলাকাবসী আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে উখিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। আহতদের মধ্যে মোবারক হোসাইনের অবস্থা আশংকা জনক।

এব্যাপারে জালিয়াপালং ইউনিয়নের  চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী বলেন, একজন প্রভাবশালী ও তার পুত্রের ইন্দনে ছাত্রলীগ পরিচয়ে নান্নু দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। প্রভাবশালী পিতা-পুত্রের ক্ষমতা দেখিয়ে নান্নু এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।    উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসেন মিথুন জানিয়েছেন, জালিয়া পালং ইউনিয়নের সভাপতির নান্নুর বিরুদ্ধে অভিযোগের কারনে ও তার বেপরোয়া কর্মকান্ডের জন্য কিছুদিন আগে ঐ কমিটি বাতিল করা হয়েছে। 

উখিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মরজিনা আক্তার জানিয়েছেন, বিষয়টি জানার পরপরই  তৎক্ষনাৎ পদক্ষেপ নিয়ে খেলা বন্ধ করে দেয়া হয়। ঘটনার মূলহোতা নান্নুকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে। উক্ত ঘটনায় জড়িতের বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে ।

মন্তব্য লিখুন :