জয়ের দুয়ারে জো বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে বিশ্বকে তাক লাগানো জয় পেতে যাচ্ছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। এতে রিপাবলিকান দলের প্রতীক হাতি পতনের মুখে।

জনতার রায়ে উত্থান হতে যাচ্ছে ডেমোক্র্যাট দলের প্রতীক গাধার। যদিও নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল পাওয়া নিয়ে এখনও অনিশ্চয়তা কাজ করছে। নির্বাচনের তিন দিন পরও বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে ভোট গণনা চলছে।

ভোট নিয়ে মামলাও হচ্ছে। যদিও দুই রাজ্যে ট্রাম্প শিবিরের দায়ের করা মামলা ইতোমধ্যে খারিজ হয়ে গেছে। এখন সবার দৃষ্টি পেনসিলভানিয়া, জর্জিয়া, অ্যারিজোনা ও নাভাদা অঙ্গরাজ্যের ফলাফলের দিকে।

এসব অঙ্গরাজ্যে এখনও ফলাফল স্পষ্ট হয়নি। সার্বিক পরিস্থিতিতে চূড়ান্ত ফলাফল কখন আসবে, তা স্পষ্ট নয়। তবে এখন পর্যন্ত যে পরিমাণ ভোট গণনা হয়েছে ও ফল জানা গেছে তাতে জো বাইডেন অনেক এগিয়ে আছেন। বলতে গেলে তিনি জয়ের দুয়ারে পৌঁছে গেছেন।

সর্বশেষ প্রাপ্ত ভোটের হিসাব অনুযায়ী ফলাফল ঘোষণার অপেক্ষায় থাকা পেনসিলভানিয়া, জর্জিয়া, অ্যারিজোনা ও নেভাদা অঙ্গরাজ্যের প্রতিটিতে জয় পেতে যাচ্ছেন বাইডেন। আগেই অ্যারিজোনা ও নেভাদায় বাইডেন এগিয়ে ছিলেন।

বৃহস্পতিবার তিনি নতুন করে পেনসিলভানিয়া ও জর্জিয়ায় এগিয়ে যান। ভোটের ধরন অনুযায়ী, চারটি রাজ্যে জয়ী হয়ে বাইডেন ৩০৬টি ইলেকটোরাল ভোট দখলে নিতে যাচ্ছেন।

তবে এখন পর্যন্ত জো বাইডেনের প্রাপ্ত মোট ইলেকটোরাল ভোট ২৫৩টি। জয়ের জন্য মোট ২৭০টি ভোট প্রয়োজন। এদিকে নর্থ ক্যারোলিনায় ট্রাম্প জয় পেতে যাচ্ছেন। ধারণা করা হয়েছিল বাইডেনের ট্রাম্পকার্ড হবে নেভাদা।

কিন্তু সেই ট্রম্পকার্ড ছাড়াও এখন জয়ের সম্ভাবনা প্রবল হয়েছে তার। ডাকযোগে আগাম ভোটের গণনার ধারাবাহিকতা পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায়, এ রাজ্যে ৮৯ শতাংশ গণনা শেষে এগিয়ে আছেন তিনি।

এখানে ইলেকটোরাল ভোট ৬টি। পেনসিলভানিয়ায় ৯৫ শতাংশ ভোট গণনা শেষে বাইডেন এগিয়ে আছেন। এ রাজ্যে আরও তিন লাখের মতো ভোট গণনা বাকি রয়েছে। এর বেশির ভাগই ডেমোক্র্যাটদের ভোট।

পেনসিলভানিয়ায় বাইডেন জয়ী হলে এখানকার ২০টি ইলেকটোরাল ভোট তিনি পাবেন। এক্ষেত্রে অন্য কোনো অঙ্গরাজ্যে তার জয়ের প্রয়োজন হবে না। তবে ভোট গণনার ধারা অনুযায়ী অন্য তিনটি অঙ্গরাজ্যেও জয় পেতে যাচ্ছেন বাইডেন।

১৬টি ইলেকটোরাল ভোটের অঙ্গরাজ্য জর্জিয়ার ৯৯ শতাংশ ভোট গণনা শেষে এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। এখানে আরও ৩০ হাজার ভোটের গণনা বাকি। ভোটগুলোর বেশির ভাগই ডেমোক্র্যাটদের। 

অ্যারিজোনায় শুরু থেকে এগিয়ে ছিলেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী। ৯০ শতাংশ গণনা শেষে এখানে ব্যবধান কিছুটা কমলেও এগিয়ে আছেন বাইডেন। আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না হলেও বিভিন্ন গণমাধ্যম ইতোমধ্যে অ্যারিজোনায় বাইডেনকে জয়ী ঘোষণা করেছে।

নর্থ ক্যারোলিনায় ৯৫ শতাংশ ভোট গণনায় এগিয়ে আছেন ট্রাম্প। ১৫ ইলেকটোরাল কলেজের এ রাজ্যে ট্রাম্পের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তবে এতে ফলাফলে কোনো প্রভাব ফেলবে না। 

সর্বশেষ তথ্য অনুসারে, এখনও পাঁচ রাজ্যে ঝুলছে ট্রাম্প ও বাইডেনের ভাগ্য। সার্বিক ফলাফলে বাইডেনের পালেই জয়ের মৃদু হাওয়া। পেনসিলভানিয়াতে ট্রাম্প জয়ের পথে এগিয়ে থাকলেও সময়ের সঙ্গে কমছে ব্যবধান।

অবশ্য নর্থ ক্যারোলিনায় শক্ত অবস্থান ধরে রেখেছেন তিনি। ২০১৬ সালের নির্বাচনে এ রাজ্যে পাঁচ শতাংশ ভোট বেশি পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন ট্রাম্প। ভোটের পর থেকেই ট্রাম্প দাবি করছেন, নির্বাচনের ফল তার কাছ থেকে চুরি করে নেয়া হচ্ছে।

যদিও তার এ দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ পায়নি নির্বাচন পর্যবেক্ষণে নিয়োজিত আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মহামারীর কারণে এ বছর ভোট গণনায় প্রচুর সময় লাগছে।

বিপুল পরিমাণ আগাম ভোটও একটি কারণ। অনেকেই বলছেন, ট্রাম্প যদি সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হন এবং আদালত যদি মামলা গ্রহণ করে তাহলে চূড়ান্ত ফলাফল শিগগিরই ঘোষণা করা সম্ভব হবে না।

মন্তব্য লিখুন :