করোনাভাইরাস : ফুটবলার মুন্নার জার্সি বিক্রি হলো ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা

করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় হয়ে পড়া মানুষকে সহযোগিতার উদ্দেশ্যে নিলামে তোলা হয়েছিল নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার এই কৃতি সন্তান বাংলাদেশের ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফুটবলার মোনেম মুন্নার জার্সি। 

গতকাল শনিবার রাতে ‘অকশন ফর অ্যাকশন’ নামক ফেসবুক পেইজে এই জার্সি নিলামে তোলা হয়। নিলামে ৩ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে জার্সিটি। কিনেছে কার্নিভাল ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠান। জার্সিটির ভিত্তিমূল্য ছিল ২ লাখ টাকা।

১৯৮৯ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়া বাংলাদেশ লাল দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ছিলেন মুন্না। সেই টুর্নামেন্টে মুন্না যে '২' নাম্বার জার্সি পরে খেলেছিলেন, সেটিই নিলামে তোলা হয়েছিল। 

একই সঙ্গে বিক্রি হয়েছে মুন্নার আবাহনী লিমিটেডের একটি জার্সি, সেটি বিক্রি হয়েছে ২ লাখ ১০ হাজার টাকায়। কিনেছেন এইচএসবিসি ব্যাংকের সিইও মাহবুবুর রহমান। যদিওবা এই জার্সিটি প্রথমে নিলামে তোলার কথা ছিলনা। নিলামে সরাসরি যোগাযোগ করে জার্সিটি কিনেন মাহবুবুর।

১৯৮৬ সালে ব্রাদার্স ইউনিয়নের হয়ে সিনিয়র লেভেলের ক্যারিয়ার শুরু। একই বছর বাংলাদেশের জার্সি গায়ে জড়ান ১৮ বছর বয়সী মুন্না। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। তারকা বনে যাওয়া এই ডিফেন্ডার পরের বছর আবাহনীতে যোগ দেন।

১৯৯১-১৯৯২ মৌসুমে ভারতের ঘরোয়া ক্লাব ফুটবলেও মাঠ মাতিয়েছেন। কলকাতার ইস্টবেঙ্গলের খেলে কিং ব্যাক খ্যাত এই তারকা ‘হল অব ফেম’ উপাধিতে ভুষিত হন। ১৯৯৭ সালে বুট জোড়া তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। 

১৯৯৯ সালে তিনি দুটি কিডনি রোগে আক্রান্ত হন ,২০০০ সালে যদিওবা তা প্রতিস্থাপন করানোর পর কিছুদিন বেঁচে ছিলেন। ২০০৫ সালের ১২ ফেব্রুয়ারী ৩৯ বছর বয়সে দেশের ফুটবল ইতিহাসের সেরা এই ডিফেন্ডারের মৃত্যু হয়।

মন্তব্য লিখুন :