পটুয়াখালীতে সিরিজ বোমা হামলার সাজাপ্রাপ্ত জঙ্গি গ্রেফতার

পটুয়াখালী জেলার মহিপুর থানার আলিপুর বাজার থেকে সিরিজ বোমা হামলার যাবতজীবন সাজাপ্রাপ্ত জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছেন এন্টি টেররিজম ইউনিট। এ ব্যাপারে সোমবার দুপুর ১২ টায় পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান একটি সংবাদ সম্মেলন করেন

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার বলেন, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারাদেশে একযোগে সিরিজ বোমা হামলা চালায় নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)। ঐদিন সকালের দেশের ৬৩ জেলাসহ ঢাকায় ৫০০ বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা। এই হামলায় নিহত হয় দুইজন আহত হয় দুই শতাধিক মানুষ।

বেলাল মিয়া (৩৬) ওরফে বেল্লাল ওরফে রুবেল ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারা দেশে জেএমবি কর্তৃক সিরিজ বোমা হামলা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামী। তার নামে খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা থানায় একটি যাবতজীবন সাজা পরোয়ানা মুলতবি রয়েছে। ঘটনার পর সে আত্মগোপনে চলে যায় এবং ঢাকা, সাভার, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় একাধিক ছদ্মনাম ব্যবহার করে আত্মগোপনে ছিল । সে বিভিন্ন সময় ভুয়া জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে।

সর্বশেষ ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে রুবেল নাম ব্যবহার করে পটুয়াখালী জেলার মহিপুর থানা এলাকায় রাজমিস্ত্রির কাজ নেন। জঙ্গিবাদ দমনে বাংলাদেশ পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিট এন্টি টেররিজম ইউনিট এর একটি চৌকস দল দীর্ঘদিন যাবত তাকে নজরবন্দি করছিল। এন্টি টেররিজম ইউনিটের উক্ত দলটি তাকে অনুসরণ করে পটুয়াখালী জেলায় এসে কয়েকদিন যাবৎ অবস্থান করেছিল ।

অবশেষে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রমের পর ১৩ জানুয়ারি ২০২০ সালে রাত আনুমানিক ২ টায় তার অবস্থান শনাক্ত করতে সক্ষম হয় এবং পটুয়াখালী জেলা পুলিশের সহায়তায় পটুয়াখালী জেলার মহিপুর থানা দিন আলিপুর বাজার হতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ব্যাপারে পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান আরও বলেন, বর্তমান সাংগঠনিক কার্যক্রম সম্পর্কে যাচাই-বাছাই করার জন্য জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত আছে এবং তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

মন্তব্য লিখুন :