তাহিরপুরে অতিরিক্ত টোল আদায়ের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও নৌ পরিবহন ধর্মঘট

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার সীমান্ত নদী যাদুকাটায় অতিরিক্ত টোলটেক্স নামের চাদাঁ আদায়ের প্রতিবাদে অনির্দিষ্ট কালের জন্য নৌ পরিবহন ধর্মঘট শুরু করেছে নৌ মালিক, শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা।

পাশাপশি টোলটেক্স নামের অতিরিক্ত চাঁদা আদায় বন্ধকরনের দাবিতে এক মানববন্ধনেও মিলিত হয়।

যাদুকাটা নদীর নৌকা মালিক, শ্রমিক, সর্দার ও হাজী নোয়াজ আলী ট্রাস্ট ফাউন্ডেশনের নেতৃবৃন্দর আয়োজনে গতকাল সোমবার সকালে তাহিরপুর উপজেলার সোহালা নতুন বাজার এলাকার যাদুকাটা নদীর পাড়ে ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন শেষে এ ধর্মঘটের ডাক দেয় তারা।

এ সময় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, যাদুকাট নদীর নৌকা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ ছিদ্দিক মিয়া, উপদেষ্ঠা বাছির মিয়া, মুক্তিযুদ্ধা আদুস ছাত্তার, জোবায়ের এন্টার প্রাইজ নৌকার ডাইভার জসিম উদ্দিন, মাঝি নাছির মিয়া, নৌ মালিক সোহালা গ্রামের শহিদ মিয়া, নৌ শ্রমিক আব্দুল আলী প্রমুখ।

বক্তারা এ সময় বলেন, টোল আদায়ের জন্য সরকারের নির্ধারিত চার্ট বা তালিকা থাকা স্বত্তেও নোয়াহাট গ্রামের রাজা হাসের ছেলে ফয়সালের নেতৃত্বে এক দল চাঁদাবাজ চক্র র্দীঘদিন যাবৎ জোরর্পূবক অতিরিক্ত চাদাঁ আদায় করে আসছে।

এমনকি সরকারের তালিকা মাফিক যেখানে একটি নৌকা ৫শত টাকা দেয়ার কথা থাকলেও সেখানে তাদের ২ থেকে ৩ হাজার টাকা করে দিতে হচ্ছে। শুধু তাই নয়! তাদের চাহিদা মত টাকা না দিলে ওই চাদাঁবাজ ফয়সালের সন্ত্রাসী বাহিনী নৌকার মাঝিসহ নৌকায় থাকা লোকদের মারধর করে ও নৌকার মালামাল নিয়ে যায়। এবং তাদের চাহিদা মত টাকা না দেওয়া পর্যন্ত নৌকা ঘাটে বেধেঁ রাখে।

এ বিষয়টি আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী উর্ধতন র্কতৃপক্ষকে বারবার জানানোর পরও এর কোন সুরাহ হচ্ছে না। তাই আমরা বাধ্য হয়েই এখন অনির্দিষ্ট কালের জন্য সবাইকে নিয়ে নৌ পরিবহন ধর্মঘট শুরু করেছি। যতক্ষন অতিরিক্ত চাদাঁ আদায় ও নৌকার লোকদের শারীরিক নির্যাতন বন্ধ না হবে ততদিন পর্যন্ত এ নৌ ধর্মঘট চলমান থাকবে।

উল্লেখ্য, যাদুকাটা নদী ও রক্তি নদীতে অতিরিক্ত টোল আদায়কারী ঘাট ইজারাদার ও চাঁদাবাজ চক্রের  বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বিগত ১২ ডিসেম্বর স্থানীয় সংসদ সদস্য, সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক, সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা নিবার্হী অফিসার বরাবর যাদুকাটা নদীর নৌকা মালিক সমিতির পক্ষ থেকে একটি লিখিত আবেদন করা হয়।

মন্তব্য লিখুন :


আরও পড়ুন