সুন্দরবনে

তথ্য সংগ্রহ ও অপরাধ সনাক্তে ব্যবহার হবে ড্রোন

পূর্ব ও পশ্চিম সুন্দরবনের চারটি রেঞ্জে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করার উদ্দেশে একটি করে মোট চারটি ড্রোন দেওয়া হচ্ছে।

শুক্রবার (১৯ মার্চ) সুন্দরবন সুরক্ষা ও পরিবীক্ষণ কাজে হালকা ড্রোনের উড্ডয়ন প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার। পশ্চিম সুন্দরবনের কালাবগী স্টেশনে পূর্ব ও পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগের ১২ জন বন কর্মকর্তা নিয়ে চার দিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। ওই অনুষ্ঠানে সুন্দরবনে ড্রোনের ব্যবহার কেমন হবে সে ব্যাপারে জানান কর্মকর্তারা।

ড্রোন যে কোনও স্টেশন থেকে উড্ডয়নের পর আশপাশের তিন কিলোমিটারের মধ্যে সব চিত্র তাৎক্ষণিক দেখতে পারবেন কর্মকর্তারা। সে অনুযায়ী দ্রুত ব্যবস্থাও নিতে পারবে বনবিভাগ। বনের দুর্গম এলাকায় টহল দিতে না পারা এলাকার চিত্রও ড্রোনের মাধ্যমে দেখতে পারবেন বন কর্মকর্তারা। এতে করে বনজ সম্পদের সুরক্ষা ও বন অপরাধ দমনে সহায়ক হবে। পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন এই তথ্য জানিয়েছেন।

প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বনবিভাগের খুলনাঞ্চলের বন সংরক্ষক মোঃ মঈনউদ্দিন খান। এসময় উপস্থিত ছিলেন পশ্চিম সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবু নাসের মহসিন হোসেন ও পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেনসহ চার জন প্রশিক্ষক।

মন্তব্য লিখুন :