সুন্দরবনে বাঘের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

সুন্দরবনে নদীর চর থেকে উদ্ধার হওয়া বাঘের মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্তের নেতৃত্ব দেন মোরেলগঞ্জ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা জিএম আব্দুল কুদ্দুস।
শনিবার (২০ মার্চ) বেলা ১১টায় সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের শরণখোলা রেঞ্জ অফিসের সামনে এই ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়।
এসময়, শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) জয়নাল আবেদীন, বন্য প্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগের মোঃ মফিজুর রহমানসহ বন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
মোরেলগঞ্জ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা জিম আব্দুল কুদ্দুস বলেন, আমরা মৃত বাঘটির ময়নাতনদন্ত সম্পন্ন করেছি। বাঘটির শরীরে কোন প্রকার আঘাতের চিহ্ন ছিল না। ধারণা করছি বাঘটি বার্ধক্য জনিত কারণে বাঘটি মারা যেতে পারে। অন্তত ৫ দিন আগে বাঘটি মারা গেছে বলে দাবি করেন তিনি।
প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা জিএম আব্দুল কুদ্দুস আরও বলেন, কয়েকদিন আগে মারা যাওয়ার কারণে বাঘটির অনেক অঙ্গেই পচে গেছে। তারপরও আমরা গুরুত্বপূর্ণ কিছু আলামত সংগ্রহ করেছি। এই আলামতগুলো রাজধানীস্থ বনবিভাগের ফরেনসিক ল্যাবে পাঠানো হবে। সেখানের রিপোর্টে বাঘটির মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) জয়নাল আবেদীন বলেন, বাঘটির ময়না তদন্ত সম্পন্ন করেছি। রেঞ্জ অফিস সংলগ্ন বনে বাঘটির মরদেহ মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে।
এর আগে ২০২০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের কবরখালী খালের চর থেকে অর্ধগলিত অবস্থায় একটি বাঘের মরদেহ উদ্ধার করে বন বিভাগ। তার আগেও ২০১৯ সালের ২০ আগস্ট সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের চাপড়াখালী এলাকায় বনের মধ্য থেকে আরও একটি বাঘের মরদেহটি উদ্ধার করে বন বিভাগ।

মন্তব্য লিখুন :