কালবৈশাখী ঝড়ে গাইবান্ধায় নিহত ১০

গাইবান্ধা জেলার প্রচন্ড ঝড়ো হাওয়ায় গাছ ও ঘর চাপা পড়ে ঝড়ো বাতাসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০জন।

সদরের রামচন্দ্রপুরে ১ জন মালিবাড়ি ও বাদিয়াখালি ইউনিয়নে ২ জন, ফুলছড়িতে ২জন, পলাশবাড়ীতে ৩ জন সুন্দরগঞ্জে ১জন,সাদুল্যাপুরে ১জন।

৪ এপ্রিল রবিবার বিকেল ৪ টার দিকে জেলার সুন্দরগঞ্জ, পলাশবাড়ী ও ফুলছড়ি থানায় এ ঘটনা ঘটে।

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন সাংবাদিকদের জানান, বিকেল চার টার দিকে হঠাৎ করে ঝড়ো হাওয়া শুরু হয়। এতে বিভিন্ন এলাকার ঘরবাড়ি ও গাছ দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে গাছ ও ঘর চাপা পড়ে অনেকেকেই হতাহত হয়।

নিহতরা হলেন গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার বেতকাপা ইউনিয়নের পৃথক স্থানে গাছচাপা পড়ে আবদুল গোফফার ও জাহানারা বেগম।এছাড়া একই উপজেলার কুমারগাড়ী গ্রামের ৬৫ বয়সি নারীর মৃত্যু হয়েছে। ময়না বেগম এবং ফুলছড়িতে শিউলি আকতার ও ফুলছড়ি উপজেলার এরেন্ডাবাড়ি গ্রামের হারিস উদ্দিন।

এছাড়াও ঝড়ো হাওয়ায় গাইবান্ধা সদর, পলাশবাড়ি, সুন্দরগঞ্জে, ফুলভড়ি, সাঘাটা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সহস্রাধিক ঘরবাড়ি, গাছপালা ভেংগে পড়ে। বিদ্যুতের খুঁটিসহ বিভিন্ন ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। গাছসহ গাছের ডালপালা রাস্তার উপর পড়ে থাকায় যানবাহন চলাচল সাময়িক ব্যহত হয়। বিদ্যুতের তার ছিড়ে যাওয়ায় শহরের সহ জেলার অন্যান্য উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে।

মন্তব্য লিখুন :