লক্ষ্মীপুরে চাচাতো ভাইদের বিরুদ্ধে মা-ছেলেকে পেটানোর অভিযোগ

লক্ষ্মীপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সৌদি প্রবাসী মোঃ শামীম ও তার মা সেতারা বেগমকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। 

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন চাচাতো ভাইয়ের বিরুদ্ধে শামীম এ অভিযোগ করেছেন।

ভুক্তভোগী পরিবার সূত্র জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ মান্দারী গ্রামের আফছার উদ্দিন পাটওয়ারী বাড়ির রাস্তা নিয়ে শামীমের সঙ্গে চাচাতো ভাই ঠিকাদার আবু নোমান রিপনের কথা কাটাকাটি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রিপনসহ তার দুই ভাই সেনা সদস্য মামুনুর রশিদ ও ইফতেখার হোসেন রোমান এলোপাথাড়ি শামীমকে কিল ঘুষি মারে। একপর্যায়ে লাঠিসোটা দিয়েও শামীমকে মারধর করে তারা। ছেলেকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে শামীমের মা সেতারা বেগমও মারধরের শিকার হন। শামীমের গলা ও পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। 

আহত শামীম সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের দক্ষিণ মান্দারী গ্রামের শরীফ উল্যার ছেলে।  আর অভিযুক্তরা হলেন, ঠিকাদার আবু নোমান রিপন, সেনা সদস্য মামুনুর রশিদ ও ইফতেখার হোসেন রোমান ওই বাড়ির আমিন পাটওয়ারীর ছেলে। 

সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোঃ শামিম বলেন, রাস্তা নিয়ে কথা কাটাকাটির মধ্যেই রিপনসহ তার ভাইয়েরা আমার ওপর হামলা করে। এসময় আমাকে কিল-ঘুষি ও লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। একপর্যায়ে তাদের কেউ একজন হত্যার উদ্দেশ্যে আমার গলা টিপে ধরে। আমি তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করবো।

অভিযোগ অস্বীকার করে ঠিকাদার আবু নোমান রিপন বলেন, শামীমকে মারামারির কোন ঘটনা ঘটেনি। তবে শামীম হঠাৎ আমাদের ওপর লাঠিসোটা নিয় হামলা করে। কিন্তু সে আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে।

মান্দারী ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবদুর রহিম মিন্টু বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল যায়। শামীমের শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখেছি। তুচ্ছ ঘটনায় তারা মারামারিতে জড়িয়েছে। স্থানীয়ভাবে এটি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য লিখুন :