হেফাজতের সমালোচনা করে ফেসবুকে পোস্ট, যুবলীগকর্মী লাঞ্ছিত

হেফাজতের ইসলামের নামে দেশব্যাপী নাশকতা ও ধর্মীয় উসকানি দিয়ে সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষতির বিরুদ্ধে ফেসবুকে লেখালেখি করায় হেফাজত অনুসারীদের হাতে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন সুনামগঞ্জের দোয়ারাজার উপজেলার এক যুবলীগকর্মী।

সোমবার (৩ মে) রাতে আল আমিন নামের ওই যুবলীগকর্মী দোয়ারাবাজার থানায় এ বিষয়ে সাতজনকে অভিযুক্ত করে লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার দোহালিয়া ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামের আল আমিন যুবলীগের সক্রিয় কর্মী। সম্প্রতি তিনি হেফাজত ইসলামের ধর্মীয় উসকানির বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিয়মিত লিখছেন। এ কারণে ধর্মপুর গ্রামের পাশে আব্দুল করিম স্টেশনারি দোকানের কাছে সোমবার বিকেলে তার ওপর হামলা করে একই গ্রামের হেফাজত অনুসারী করিম উল্লা, মনির উল্লা, আব্দুর রহমান, উকিল আলী, ফকির আলী, মোহাম্মদ আলী ও আকমদ আলী। তাদের হাতে শারীরিক লাঞ্ছিত হয়ে তিনি সন্ধ্যায় দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে রাতে এদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

যুবলীগকর্মী আল আমিন বলেন, আমি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলাম। এখন যুবলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় আছি। সম্প্রতি দেশব্যাপী ইসলাম রক্ষার নামে হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের সমালোচনা করে একাধিক পোস্ট দিয়েছিলাম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে আমার ওপর হেফাজত অনুসারীরা হামলা চালিয়েছে। আমি রাতে তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।

দোয়ারাবাজার থানার ওসি নাজির আলম বলেন, আল আমিনের কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আজ আমি নিজে ঘটনাস্থলে গিয়ে খোজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেব।

সূত্র: দৈনিক কালের কন্ঠ

মন্তব্য লিখুন :