কচুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান আর নেই

বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম মাহফুজুর রহমান আর নেই। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তিনি দুই মেয়ে, দুই ছেলে ও তিন স্ত্রীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন রেখে গেছেন।

বুধবার (০৫ মে) বিকেল পৌনে পাঁচটায় রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

সন্ধ্যায় মরহুমের স্বজনরা মরদেহ নিয়ে কচুয়ার সাইনবোর্ডের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন। বাড়িতে পৌঁছানোর পরে জানাজার সময় জানানো হবে বলে জানিয়েছেন মরহুমের বড় ছেলে এসএম মেহেদী হাসান বাবু।

এস মাহফুজুর রহমান বেশ কিছুদিন ধরে শ্বাসকষ্টসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। সব শেষে এপ্রিল মাসের প্রথম দিকে খুলনার সিটি মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ০২ মে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এই জনপ্রিয় নেতাকে।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম মাহফুজুর রহমান কচুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। ২০০৯ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে সর্বপ্রথম কচুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালেও তিনি একই দলের প্রার্থী হিসেবে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সর্বশেষ ২০১৯ সালের সর্বশেষ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে টানা তৃতীয়বারের মত তিনি কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।এর আগে তিনবার পরপর তিনি রাড়ীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত সদস্য হিসেবে জনপ্রতিনিধি হিসেবে জীবন শুরু করেন তিনি।যুবক বয়সে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড সদস্য হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন এসএম মাহফুজুর রহমান।

এদিকে উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে কচুয়ায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত্যুর খবর শুনে অসংখ্য নেতাকর্মীরা তার সাইনবোর্ডস্থ বাসভবনে ভীড় জমিয়েছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম মাহফুজুর রহমানের মৃত্যুতে শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন কচুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন।

কচুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম আবু বকর সিদ্দিক বলেন, কচুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে কচুয়াবাসীর অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেলে। দল ও এলাকাবাসীর যেকোন দুঃসময়ে তিনি সবার পাশে থাকতেন। একরম জনদরদী রাজনীতিবিদের মৃত্যু আমাদের খুব ব্যথিত করেছে। আমরা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করি। তার পরিবারের সকলের সুস্থতা কামনা করি।

মন্তব্য লিখুন :