হেফাজতের হামলার ৮ বছরেও বিচার পায়নি সাংবাদিক টুটুল

বাগেরহাটের প্রেসক্লাবের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক এবং সময় টেলিভিশনের বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি আলী আকবর টুটুলের উপর হোফজত কর্মীদের হামলার ৮ বছর পেরিয়ে গেলেও বিচার হয়নি। পেশাগত দায়িত্ব পালন শেষে ফেরার পথে কে বা কারা হামলা করেছে তাও জানা নেই পুলিশের। 

বৃহস্পতিবার (৬ মে) সাংবাদিক টুটুলের উপর হামলার বিচারের দাবি জানান গণমাধ্যমকর্মীরা।

জানা যায়, বর্বরোচিত এ হামলার কিছুদিন পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ফকিরহাটে থানা ভবন উদ্বোধনের সময় জনসম্মুখে তৎকালীন পুলিশ সুপারকে মামলা করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন। তারপরও এতদিনে কোন বিচার হয়নি! সে কারণ অজানা সাংবাদিকদের কাছে। যার ফলে বাগেরহাটের সাংবাদিকদের মধ্যে একধরনের ক্ষোভ বিরাজ করছে। 

২০১৩ সালের  আজকের এই দিনে বাগেরহাটের প্রেসক্লাবের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক এবং সময় টেলিভিশনের বাগেরহাট প্রতিনিধি আলী আকবর টুটুলের উপর হামলা করেছিল হেফাজত কর্মীরা। খুলনা-বাগেরহাট মহাসড়কের ফকিরহাট উপজেলার কাঁঠালতলা এলাকায় হেফাজত কর্মীরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করছিল। এসময় সংবাদ সংগ্রহ করে ফেরার সময় ২০-২৫ জন হেফাজত কর্মী টুটুলের উপর চড়াও হয়ে বেধড়ক মারপিট করে। পরে সহকর্মীরা উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন টুটুলকে। হামলার ৮ বছর হলেও হয়নি কোন বিচার। 

সাংবাদিক টুটুল বলেন, হেফাজত কর্মীদের হামলার শিকার হয়ে এখনও শারীরিকভাবে অসুস্থ বোধ করছি। দুইবার ভারতে গিয়ে চিকিৎসা নিয়েছি। তারপরও পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠতে পারিনি। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী এখনও ঔষধ সেবন করে যাচ্ছি। আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রচুর অর্থ প্রয়োজন। টুটুল আরও বলেন, হামলার বিষয়টি আজও মনে পরলে ভয়ে আঁতকে উঠি। সকলের দোয়া ছিল তাই আজও সংবাদ মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছি। তবে কারা হামলা করছিল পুলিশ আজও তা জানাতে পারেনি! এটাই আমার দু:খ! আশা করি কোন সংবাদকর্মীকে যেন এরকম ভয়াবহ ঘটনার মুখোমুখি হতে না হয়।

মন্তব্য লিখুন :