তাহিরপুরে টাস্ক ফোর্সের আভিযান

সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী জাদুকাটা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের খবর পেয়ে  টাস্ক ফোর্সের আভিযানে বালুসহ ১৮ টি ছোট-বড় নৌকা আটক করা হয়েছে।

৪ জুন (শুক্রবার)  বিকাল ৩ টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রায়হান কবিরের নেতৃত্বে টাস্ক ফোর্স অভিযান চালিয়ে জাদুকাটা নদীর ঘাগটিয়া ও ঘাগড়ার কুর নামক স্থান থেকে ১০ হাজার ঘনফুট থেকে ১ হাজার ঘনফুট ধারণকৃত ১৮ টি স্টিল বডি বলহেড নৌকা আটকের পর নৌকায় থাকা ৪৫ হাজার ঘনফুট বালু বালু জব্দ দেখিয়ে রাত ৯ টায় প্রকাশ্যে নিলামে মাধ্যমে সরকারি ট্যাক্স ভ্যাট সহ ১০ লাখ ৯ হাজার ১২৫ টাকায় উন্মুক্ত নিলামে বিক্রি করা হয়। এবং অবৈধ বালি পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ১৮ টি নৌকাকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১৮ টি মামলায় মোট ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বিকাল ৩ টা থেকে প্রায় ৬ ঘন্টা অভিযান শেষে রাত ৯ টায় উন্মুক্ত নিলামে জব্দকৃত ৪৫ হাজার ঘনফুট বালু ১০ শতাংশ ভ্যাট এবং ৫ শতাংশ ট্যাক্স সহ সরকারি মূল্য ১২ টাকা নির্ধারণ করে নিলামের ওপেন ডাক দেয়া হলে স্থানীয় ১৯ জন ব্যবসায়ীর অংশ গ্রহণে মোদেরগাও  গ্রামের হাজ্বী জালাল উদ্দিনের ছেলে সোহাগ মিয়া প্রতি ঘনফুট বালু ১৯ টাকা ৫০ পয়সায় সর্বচ্চ দরদাতা হিসেবে ১০ লাখ ৯ হাজার ১২৫ টাকায় নিলামের বালু কিনে নেয়।

টাস্ক ফোর্সের অভিযানে এসময় উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রেজাউল করিম, তাহিরপুর থানার ওসি আব্দুল লতিফ তরফদার, সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের এস ও রাকিব হোসেন, বাদাঘাট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন, লাউড়েরগড় সীমান্ত ফাঁড়ির হাবিলদার মাহবুব, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী আব্দুর রাকিব হোসেন পাঠান, সাংবাদিক সাজ্জাদ হোসেন শাহ, কামাল হোসেন, আবির হাসান মানিক প্রমুখ।

এ ব্যাপারে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রায়হান কবির বলেন, অবৈধ বালি পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন নৌকাকে মোবাইল কোর্টেও মাধ্যমে ১৮ টি মামলায় মোট  ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এবং নৌকায় থাকা ৪৫ হাজার ঘনফুট বালু উন্মুক্ত নিলামে ১০ লাখ ৯ হাজার ১২৫ টাকায় বিক্রিয় করা হয়। তাছাড়া সুনামগঞ্জের সুযোগ্য জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা মোতাবেক এধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য লিখুন :