বাগেরহাটে হামলার ঘটনায় থানায় মামলা, আটক ১

বাগেরহাট সদর উপজেলার বেমরতা ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় মহিলাসহ ৬ জন আহত হওয়ার ঘটনায় বাগেরহাট সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সুলতানপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নান শেখের ছেলে মোঃ জাকির শেখ বাদি হয়ে ৮ জনকে আসামি করে বাগেরহাট মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে সুলতানপুর থেকে মামলার প্রধান আসামি স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা তারিকুজ্জামান নকিবকে (২৬) আটক করেছে পুলিশ। 

এর আগে বুধবার (২৬ মে) সুলতানপুর গ্রামের মোঃ জাকির শেখের বসত বাড়িতে একই গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান নকিবের পুত্র তারিকুজ্জামান নকিব (২৬) সহ  তার ১০/১২ জন সহযোগী অবৈধ ভাবে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে জাকির শেখের বসতবাড়িতে জোরপূর্বক ঘর বাঁধতে যায়। এতে জাকির হোসেন ও তার পরিবার বাধা দিলে মাহাবুবুর রহমান নকিব সহ তাদের সহযোগিরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। এতে লুৎফুন্নেসা, রোজিনা আক্তার, মাফিজুল, সুলতান, আজাদ শেখ ও বুলবুর হোসেন গুরুতর আহত হয়।

মামলার বাদি মো: জাকির হোসেন জানান, আমাদের বাড়িতে অবৈধভাবে প্রবেশ করে ঘর বাঁধতে গেলে আমরা বাধা দিলে আসামিদের দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে নারীসহ ৬ জন গুরুত্বর জখম হয়। আমরা হামলার ঘটনা প্রশাসনকে জানাই ও থানায় অভিযোগ দেই। প্রশাসন ঘটনার সত্যতা পেয়ে বৃহস্পতিবার অভিযোগটি এজাহার ভুক্ত করেন। পুলিশ শুক্রবার মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেফতার করলে আসামিরা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়। আসামিরা প্রভাবশালী হওয়ায় গ্রেফতারের পর থেকে মামলার অন্য আসামিরা আমাদের বাড়ির সামনে বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাতভর শোডাউন দেয় ও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। প্রাণের ভয়ে এখন পরিবারের সকল সদস্য বাড়ি ছাড়া। তিনি মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ ও সুদৃষ্টি কামনা করছি।

এ বিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আজিজুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ একজর আসামিকে গ্রেফতার করেছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

মন্তব্য লিখুন :