চার দফা দাবিতে মৌন সমর্থনে গাইবান্ধায় অর্ধ দিবস হরতাল পালিত

সকল শ্রেণিপেশার মানুষের মৌন সমর্থনে গাইবান্ধায় জুতা ব্যবসায়ী হাসান আলী হত্যার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার এবং সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অপসারণসহ ৪ দফা দাবি বাস্তবায়নে হাসান হত্যা প্রতিবাদ মঞ্চের ডাকে পালিত হলো অর্ধদিবস হরতাল।

ব্যবসায়ী ও ছোট বড় যানবাহন মালিকদের সাথে আলোচনায় তারা বলেন, গাইবান্ধা জেলা জুড়ে সুদের কারবার বেড়ে গিয়েছে। আর সুদখোর দাদন ব্যবসায়ীদের টার্গেট এসব ছোট ছোট উদ্যোক্তা ব্যবসায়ীর। তাদের অল্প পুঁজিতে অধিক লোভ লালসায় ফেলে অর্থনৈতিক ভাবে পঙ্গু ও জীবননাশকারীদের বিরুদ্ধে আজকের প্রতিবাদমূলক হরতালে আমাদের জোরালো সমর্থন রয়েছে। প্রতিবাদকারীরা জানান, 'আমরা নিজ ইচ্ছায় আন্দোলনকারীদের প্রতি সমর্থন জানিয়ে দোকান পাট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও যানবাহন বন্ধ করে রেখেছি।'

তারা হাসান আলী হত্যার সঠিক বিচার দাবি করেছেন।

‘হাসান হত্যার প্রতিবাদ মঞ্চে’র পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি হিসাবে জেলা শহরে আজ বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই হরতাল চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত। হরতালের সমর্থনে ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ রেখেছেন। তাছাড়া রিকশা-ভ্যান চলাচলেও বাধা সৃষ্টি করছেন হরতাল সমর্থনকারীরা। কোথাও কোথাও রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে পিকেটিং করতেও দেখা গেছে তাদের।

এ ছাড়া শহরজুড়ে হরতালকারীরা বিক্ষোভ মিছিল অব্যাহত রেখেছেন। অর্ধদিবস হরতাল পালনে হাসান আলী হত্যার সঠিক বিচারের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের মৌন সমর্থন প্রকাশিত হয়েছে। তবে বড় কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। জেলা শহরে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

উল্লেখ্য, গাইবান্ধার বিশিষ্ট জুতা ব্যবসায়ী হাসান আলীকে অপহরণ করে বাড়িতে টানা এক মাস পাঁচ দিন আটক রাখেন দাদন ব্যবসায়ী ও জেলা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা মাসুদ রানা। পরে হাসানের স্ত্রী তার স্বামীকে উদ্ধারের জন্য সদর থানায় অভিযোগ করলেও পুলিশ তাকে উদ্ধার করে উল্টো মাসুদ রানার কাছেই হাসানকে তুলে দেন। পরবর্তীতে গত ১০ এপ্রিল মাসুদ রানার বসতবাড়ি থেকে ব্যবসায়ী হাসানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় হাসানের স্ত্রী বাদী হয়ে সদর থানায় মাসুদ রানাসহ তিনজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। ঘটনার পর মাসুদ রানাকে পুলিশ আটক করলেও অপর দুই আসামি এখনো পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় ২ পুলিশ সদস্য কে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হলেও ওসিকে অপসারণ ও তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণসহ ৪ দফা দাবিতে হাসান হত্যা প্রতিবাদ মঞ্চ আন্দোলন চলমান রেখেছে। অর্ধদিবস হরতাল পালিত হচ্ছে বিক্ষোভ, মানববন্ধন, প্রতিবাদ সভা, সমাবেশ, পথ-সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মাধ্যমে। 

মন্তব্য লিখুন :