রাতদিন ঘোষণা দিয়ে বসতো জুয়ার আসর

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় ১০ জুয়াড়িকে আটক করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার (১৬ জুন) রাত ৮টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের গোপলার বাজারস্থ মুর্তজা কমিউনিটি সেন্টারে জুয়া খেলা অবস্থায় তাদেরকে আটক করা হয়েছে। পরে আকটকৃতদের বিভিন্ন মেয়াদে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মহি উদ্দিন।

দণ্ডাদেশ প্রাপ্তরা হলো- মুর্তজা কমিউনিটি সেন্টারের মালিক ও ফুটারচর গ্রামের মৃত গোলাম মুর্তজার ছেলে মোঃ জাবেদ মিয়া (৪০), জালালসাফ গ্রামের মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে আব্দুল বাছিত (৪৮), একই গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে ফয়জুল রহমান (৬০), হৈবতপুর গ্রামের মোঃ সঞ্জব আলীর ছেলে মোঃ ইউনুছ মিয়া (৩৮), ভানুদেব গ্রামের মৃত সঞ্জব উল্লার ছেলে আবুল মিয়া (৬২), একই গ্রামের আব্দুল হোকের ছেলে মোঃ আইনুল হক (২৬), সাদুল্লাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল আহাদের ছেলে মিলন মিয়া (৩০), গহরপুর গ্রামের মোঃ আলকাছ উল্লার ছেলে মোঃ ছানু মিয়া (৪৭), বৈঠাখাল গ্রামের মৃত ছত্তার মিয়ার ছেলে সেলিম মিয়া (৪১) ও মৃত আলকাছ মিয়ার ছেলে মালা মিয়া (৩১)।

জানা যায়, বেশকিছু দিন ধরেই মুর্তজা কমিউনিটি সেন্টারে দিনেরাতে ঘোষণা দিয়ে বসে আসছিল জুয়ার আসর। এমন খবর আসার পর গতকাল রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ সহকারে সেখানে হাজির হন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মহি উদ্দিন। এ সময় হাতে নাতে জুয়া খেলা অবস্থায় ১০ ব্যক্তিকে আটক করেন তিনি। পরে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে বঙ্গীয় প্রকাশ্য আইনে ৯ জনকে এক মাস করে ও জুয়া খেলার স্থান দেয়ায় কমিউনিটি সেন্টারের মালিককে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মহি উদ্দিন।

মন্তব্য লিখুন :