কালিগঞ্জে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে প্রশাসন

সাতক্ষীরা জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির মিটিং এর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী (১৮ জুন) শুক্রবার থেকে তৃতীয় ধাপে আরো এক সপ্তাহ লকডাউন ঘোষণা করেছে।

কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার রবিউল ইসলাম সাতদিন সকাল-বিকাল মানুষকে ঘরে রাখতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাঠে থাকবে উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারী বৃন্দ রাজনৈতিক সংগঠন, অঙ্গ সংগঠন, জনপ্রতিনিধিবৃন্দ সহ সকলকে লকডাউন বাস্তবায়নে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

এদিকে শনিবার (১৯ জুন) কালিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে বিভিন্ন প্রচার প্রচারণা কার্যক্রম চালানো এবং মাক্স বিতরণ করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সকাল, বিকাল ও সন্ধ্যা  উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার এলাকায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে মাঠে রয়েছেন। এছাড়া লকডাউন বাস্তবায়ন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটি ওয়ার্ড এর করোনা প্রতিরোধ কমিটি এ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে সকল মানুষের ঘরে রাখার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান সকাল ৮ টা থেকে সকাল ১১ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। বাকি সব দোকানপাট বন্ধ থাকবে। অকারনে বাসার বাইরে বের হওয়া যাবেনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহ্বান জানিয়েছেন।

শুক্রবার (১৮ জুন) উপজেলার কুশুলিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের স্ত্রী পাতাসি বিবি (৫৬) করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে। এদিকে ১৯ জুন করোনা উপসর্গ নিয়ে উপজেলার বাজার গ্রাম রহিমপুর এর মৃত আবেদ আলীর পুত্র পোস্টমাস্টার আইয়ুব আলী (৫৬) খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেলে সেখান থেকে নিজের বাড়িতে নিয়ে এসে দাফন করা হয়। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

মন্তব্য লিখুন :