নয়নের ব্যাপক তৎপরতা, শিপনের আছে অজুহাত

লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনে উপনির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি নিয়ে শঙ্কা রয়েছে।

সোমবার (২১ জুন) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এবারই প্রথম লক্ষ্মীপুরে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

এদিকে গেল রামগতি ও রায়পুর পৌরসভা নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটাররা ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। নির্বাচন গুলোতে কাউন্সিলর প্রার্থীদের জেতাতে ভোটারদের উপস্থিতি সরব ছিল কেন্দ্রগুলোতে। কিন্তু একাদশ সংসদ নির্বাচনের তেমন উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি।

অন্যদিকে রামগতি পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের সমর্থকদের কালো পর্দার বাইরে ইভিএম মেশিন নিয়ে বসে থাকতে দেখা গেছে। ফিঙ্গার প্রিন্ট দেওয়ার পর আওয়ামীলীগ নেতাদের সামনেই ভোট দিতে বাধ্য করা হয়েছে ভোটারদের।

ওইসময় দায়িত্বপ্রাপ্ত পোলিং অফিসারকে প্রশ্ন করলে, জবাবে তিনি জানান, পেছনের তাকানোর অনুমতি নেই। রায়পুরে ভোটাররা ফিঙ্গার প্রিন্ট দিলেই দৌড়ে গিয়ে আওয়ামীলীগের সমর্থকরা ভোট দিয়ে দিতে দেখা গেছে। এসব নিয়ে তখন ভোটাররা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন। এ নিয়েই ভোটারদের উপস্থিতি নিয়ে শঙ্কা করছেন সচেতন মহল।

তবে গত ১৬ জুন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা বলেন, বুথের মধ্যে অন্য লোক গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে, এটাতো সম্ভব না। ইভিএমে ভোটের ক্ষেত্রে প্রিসাইডিং ও পোলিং অফিসারদের ওপর আস্থা রাখতে হবে। তাদেরকে বিশ্বাস করতে হবে। একজনের ভোট আরেকজনে দিয়ে দেবে, এটা সম্ভব না।

সূত্র জানায়, নির্বাচনী প্রচারণার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এ আসনের প্রত্যেকটি এলাকা নৌকার প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন চষে বেড়িয়েছেন। কিন্তু প্রতিদ্বন্দ্বী লাঙলের প্রার্থী জাতীয় পার্টির সদস্য শেখ ফায়িজ উল্যাহ শিপনের প্রচারণা নিষ্ক্রিয়ই ছিল।

যদি গত দুইবার জোটগত কারণে এ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী দেয়নি। আওয়ামীলীগ দুইবারই জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দিয়েছে। শেষবার জাতীয় পার্টির সাবেক এমপি মোহাম্মদ নোমান মনোনয়ন পেয়েও অদৃশ্য কারণে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। 

পরে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল এমপি নির্বাচিত হন। সেই পাপুল কুয়েতে ঘুষ কেলেঙ্কারিতে ৭ বছরের সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় আসনটি শূন্য ঘোষণা করে উপনির্বাচন দেওয়া হয়।

রিটার্নিং কর্মকর্তা সূত্র জানায়, আসনটিতে সদরের ৯টি ইউনিয়ন, রায়পুর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা রয়েছে। ইভিএমের মাধ্যমে ১৩৬ ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮ টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হবে। এ আসনে ৪ লাখ ২ হাজার ৯৬৩ জন ভোটার রয়েছেন। 

লক্ষ্মীপুর-২ আসনে উপ-নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ তোফায়েল হোসেন বলেন, সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের অধীনে আইন-শৃৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সার্বক্ষণিক টহলে থাকবে।

মন্তব্য লিখুন :