চাল-ডাল ক্রয় করতে না পারলে কাঁচা তরি-তরকারি দিয়ে কি হবে?

চাল ডাল নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী কিনতে না পারলে তরি-তরকারি কিনে কি হবে? তরকারি খেতে হলে ভাত লাগবে।

শিক্ষক, ব্যবসায়ী, হত দরিদ্ররা এবং একাধিক ব্যক্তির সাথে কথা বলে জানাযায়, ভাত রান্নার চালসহ খাদ্য সামগ্রী কিনতে পারছে না তারা।

মহামারী করোনা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ফরিদপুরে গত ২১ জুন থেকে ২৭ জুন পর্যন্ত ৭ দিন লকডাউন  দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন ও দিয়েছে কিছু নিষেধাজ্ঞা। এর মধ্যে রয়েছে কাঁচা বাজার বাদে সকল প্রকার দোকানপাট, যানবাহন, হোটেল-রেস্টুরেন্ট বন্ধ। নিষেধাজ্ঞার মধ্যে রয়েছে অতি প্রয়োজনীয় মুদি দোকান।

ফরিদপুরে অসহায় হয়ে পড়েছে শ্রমজীবী খেটে খাওয়া মানুষ। তার মধ্যে অটোচালক, ভ্যান চালক, রিক্সা চালক, দিন মুজুররা। অনেকে না খেয়ে বাড়ি বসে আছে। আবার যারা কাজ করছেন তারা নিষেধাজ্ঞার কারণে চাউল-ডাউল কিনতে পারছে না।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ব্যক্তিরা জানান, লকডাউনের কারণে কিছু ব্যক্তিদের ব্যবহার এতো চরমে পৌছিয়েছে যা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। ক্ষমতা পেলে জনগণের উপর প্রয়োগ করতে থাকে তারা।

ফরিদপুরে বৃহস্পতিবার ৪র্থ দিনের মত চলছে লকডাউন।

মন্তব্য লিখুন :