বগুড়ায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু ১৯, শনাক্ত ২৩৮

বগুড়ায় করোনা দিন দিন ভয়াবহ রুপ ধারণ করছে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে বগুড়ার তিন হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতদের মধ্যে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ৩জন, মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে ৩জন, টিএমএসএস হাসপাতালে একজন ও নিজ বাড়িতেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃত্যু তলিকায় যুক্ত ৮ জন হলো-গাইবান্ধার রেহানা (৯০), নওগাঁর মুসলেমা (৪০) ও রহমান সরকার (৬৩), জয়পুরহাটের মোর্শেদা (৪০), তবিবর (৬৮) ও বাবু (৩৫) এবং বগুড়া শিবগঞ্জের দুলাল (৮৫) ও আজাহার (৫০)। এদের মধ্যে আজাহার নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এছাড়াও গত ২৪ ঘন্টায় সরকারী বেসরকারী পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করা ৮১০ নমুনার ফলাফলে ২৩৮ জন পজিটিভ হয়েছে। ২৩৮ জনের মধ্যে সদরের ১৭৭ জন, শেরপুরে ১১ জন, দুপচাঁচিয়ায় ৯ জন, গাবতলীতে ৭ জন, কাহালুতে ৭ জন, সারিয়াকান্দিতে ৬ জন, ধুনটে ৬ জন, আদমদীঘিতে ৭ জন, সোনাতলায় ৩ জন, শাজাহানপুরে ৩ জন এবং শিবগঞ্জে ২ জন। আক্রান্তের হার ২৯দশমিক ৩৮শতাংশ। একই সময়ে সুস্থ হয়েছে ৮৮ জন। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। 

৫ জুলাই ঢাকায় পাঠানো ২১৭ নমুনার ফলাফলে ৯৩ জন, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল পিসিআর ল্যাবে ২৮২টি নমুনায় ৬৬ জন, জিন এক্সপার্ট মেশিনে ৪নমুনায় ৩ জন, এন্টিজেন পরীক্ষায় ২৫৯ নমুনায় ৬০ জন এবং টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ ও রফাত উল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল পিসিআর ল্যাবে ৪৮ নমুনায় ১৬ জন পজিটিভ হয়েছে।

এই নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হলো ১৪ হাজার ৯৩১জন এবং সুস্থ ১৩ হাজার ৮৩ জন। এছাড়াও নতুন করে ৮জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট মৃত্যু ৪৩৭ জন। বর্তমানে করোনায় চিকিৎসাধীন রয়েছে ১৪১৩জন।

ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ প্রতিবেদক-কে বলেন, নতুন আক্রান্তদের নিজ নিজ বাড়ীতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চিকিৎসা চলছে। যদি কারও অবস্থা জটিল হয় তাহলে দ্রুত হাসপাতালে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। 'করোনা আক্রান্তে এবং উপসর্গে মারা যাওয়ার মধ্যে বিস্তর তফাৎ রয়েছে। যে ১১জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছেন তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। ফলাফল পেলে জানানো হবে।'

মন্তব্য লিখুন :