বাগেরহাটে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ১ বছর ধরে ধর্ষণ

বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার উত্তর মাধবকাঠী গ্রামের ১৮ বছরের এক মেয়েকে ১ বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী নিজাম শেখের বিরুদ্ধে।

এই বিষয়ে ভুক্তভোগী মেয়ের পিতা বাদি হয়ে মঙ্গলবার (৬ জুলাই) কচুয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত নিজাম উত্তর মাধবকাঠী গ্রামের আলতাফ শেখের ছেলে।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটি জানান, দেড় বছর আগে প্রতিবেশী নিজাম শেখের সাথে তার সম্পর্ক হয়। সম্পর্কের এক পর্যায়ে সে আমাকে বিভিন্ন ভাবে কুপ্রস্তাব দিতে থাকে। আমি কোন ভাবেই তার কুপ্রস্তাবে রাজি হয়নি। প্রায় ১ বছর পূর্বে সে আমাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে বিভিন্ন সময়ে পার্শ্ববর্তী পরিত্যক্ত ঘরে সে আমার সাথে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে। আমি তাকে বিয়ের কথা বললে সে কালক্ষেপণ করতে থাকে। গত ০২ জুলাই রাতে আমি বাইরে বের হলে সে আমাকে মুখ চেপে ধরে পার্শ্ববর্তী কাঠের ঘরে নিয়ে যায় ও আমাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। বিষয়টি স্থানীয়রা দেখে ফেললে আমার পরিবারকে জানায়। পরবর্তীতে আমার পিতাসহ স্থানীয়রা আসামী নিজাম শেখকে বিয়ের কথা বললে সে বিয়ে করবে না বলে জানায়।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে লোক লজ্জার ভয়ে এলাকায় মুখ দেখাতে পারছে না ভুক্তভোগী মেয়েটি। ঘটনার সঠিক বিচার দাবি করেন ধর্ষণের শিকার এই মেয়েটি। 

এ বিষয়ে কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন, ধর্ষনের ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করার জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামীকে দ্রুত গ্রেফতারের জন্য কাজ করছে পুলিশ।


মন্তব্য লিখুন :