মা’কে হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে ছেলে, ৯দিন পর মৃত্যু

পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলায় মা’কে হাসপাতালে গভীর রাতে রেখে পালিয়েছে ছেলে ইব্রাহিম(১৬)।

৫ জুলাই সকালে মাহিনুর(৫০) নামে এক মহিলাকে কলাপাড়া হাসপাতালে রেখে কাউকে কিছু না বলে সটকে পড়েন তিনি। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হওয়ার ৯ দিন পরে মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সেই মহিলার মৃত্যু হয়েছে।

জানা যায়, মাহিনুর কলাপাড়া উপজেলার লতাচাপলী ইউনিয়নের আলীপুর বাজার সংলগ্ন মৃত্যু অলিউল্লাহর স্ত্রী। গত ১৫ বছর আগে স্ত্রী ও তিন সন্তান রেখে মারা যান তার স্বামী। বড় ছেলে স্ত্রীকে নিয়ে চট্টগ্রামে ও মেয়ে স্বামীর বাড়িতে থাকে। তারা কেউ মায়ের খোঁজ রাখেনি। পরে ঐ রাতে মাহিনুর অসুস্থ হয়ে পরলে তার ছোট ছেলে গোপনে হাসপাতালের বারান্দায় তাকে রেখে পালিয়ে যায়। এর পাঁচদিন পর (৯ জুলাই) মিন্টু নামের এক ব্যক্তি ও কুয়াকাটা জন্মভূমি ক্লাবের সভাপতি বাচ্চু ওই মহিলার ছোট ছেলে ইব্রাহিমকে খুঁজে পান। কিন্তু এরপরও হাসপাতালে সে আসেনি। পরে মাহিনুরের সব চিকিৎসার দায়িত্ব নেন মিন্টু ও বাচ্চু।

মিন্টু জানিয়েছেন, মৃত্যুর পর তার দুই ছেলে ও মেয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। কিন্তু তারা মরদেহ নিতে অস্বীকৃতি জানান। পরে আমরা নিজেরাই মরদেহ দাফনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

লতাচাপলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনসার উদ্দিন বলেছেন, লাশ নেয়ার ব্যাপারে মহিলার পরিবারের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হয়েছে। কিন্তু তার ভাই, বোন ও ছেলে-মেয়ে কেউ মরদেহ নিতে চায়নি। পরে আমরা স্থাণীয়রা নিজ উদ্যোগ নিয়ে তাঁকে গোসল করানোর ব্যবস্থা করেছি এবং রাতেই কলাপাড়া পৌরসভার কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন :