ফরিদপুরে ব্রীজ থেকে নদীতে লাফ: মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে নদীতে পড়ে এক মাদ্রাসা ছাত্র নিঁখোজ হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের সাড়ে চার ঘণ্টা এবং মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাট থেকে আসা পাঁচ জন ডুবুরিদের ঘণ্টাখানেকের চেষ্টা সত্ত্বেও ওই ছাত্রের খোঁজ মেলেনি।

ওই মাদ্রাসা ছাত্রের নাম মাজেদ (১৪)। সে চতুল ইউনিয়নের পোয়াইল গ্রামের ক্বারী মো. ফুল মিয়ার ছেলে। উপজেলার সাতৈর ইউনিয়নের ডোবরা হাফেজিয়া মাদ্রাসার চার পর্বের শিক্ষার্থী মাজেদ। তার বাবা ক্বারী মো. ফুল মিয়া ওই মাদ্রাসারই শিক্ষক। মাজেদরা তিন ভাই, দুই বোন।

তেলজুড়ী বাজারের বণিক সমিতির সভাপতি ও শেখর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. ওবায়দুর রহমান সরদার জানান, শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার শেখর ইউনিয়নের তেলজুড়ী বাজারের স্টিলের ব্রীজ থেকে নদীতে লাফ দিয়ে মাজেদ নিখোঁজ হয়। স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান না পেলে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়।

তিনি আরো বলেন, মাজেদ তার সমবয়সী পাঁচ জনের সাথে নদীতে লাফ দিচ্ছিল। নদী থেকে প্রায় ২০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত ব্রীজ থেকে প্রথম লাফ দেয় নিঁখোজ মাজেদ। এরপর আরো দুই সহপাঠী লাফ দেয়। কিন্তু মাজেদ ভেসে না উঠায় অন্য দুই জন আর লাফ না দিয়ে তারা বাড়ি গিয়ে বিষয়টি জানায়।

ফরিদপুরের বোয়ালমারী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ম্যানেজার আ. সাত্তার মোল্যা বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক অভিযান চালিয়েছি। বেলা পাঁচটা পর্যন্ত কোন সন্ধান পাইনি। এরপর পাটুরিয়া ঘাট থেকে আগত পাঁচ জন ডুবুরি বিকেল পাঁচটা থেকে উদ্ধার অভিযান শুরু করেছেন।

মন্তব্য লিখুন :