কমলনগরে নৌকাডুবির ৩ দিন পর মিলল বাবার লাশ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে মেঘনা নদীতে মাছ ধরার সময় নৌকা ডুবে নিখোঁজের তিন দিন পর মো. নুরুজ্জামানের (৫০) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো তার ছেলে নুর উদ্দিন (২৮) নিখোঁজ রয়েছেন।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার মতিরহাট এলাকায় নদী থেকে নুরুজ্জামানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এর আগে শনিবার (৬ নভেম্বর) রাত ৩টার দিকে উপজেলার চরফলকন ইউনিয়নের মাতাব্বরহাট এলাকায় মেঘনা নদীতে নৌকাডুবিতে তারা নিখোঁজ হন। নিহত নুরুজ্জামান চরফলকন ইনিয়নের জাজিরা গ্রামের নতুন বাসিন্দা। এরআগে তাদের বাড়ি সাহেবেরহাট ইউনিয়নের জগবন্ধু গ্রামে ছিল।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সকালে মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থল গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থল পৌঁছে নুরুজ্জামানের মরদেহ শনাক্ত করে।

জানা যায়, নুর উদ্দিন একটি বিমা কোম্পানিতে চাকরি করতেন। শখ করে বাবার সঙ্গে তিনি নদীতে মাছ ধরতে যায়। কিন্তু সে সাঁতার জানতো না। রাতে তারা মাছ ধরার সময় একটি পন্টুনের সঙ্গে ধাক্কায় ৬ জনসহ নৌকা ডুবে যায়। এ সময় চার জেলে সাঁতরে কূলে আসতে পারলেও বাবা-ছেলে নদীতে তলিয়ে যায়।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, নদীতে নিখোঁজ নুরুজ্জামানের মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখনো তার ছেলে নিখোঁজ রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন :