ক্রেতাশূন্য কোরবানী হাটে দুশ্চিন্তায় গরু ব্যবসায়ীরা

কোরবানী ঈদ হলেও এখনো জমেনি নওগাঁর ধামইরহাটের পশুর হাট। ক্রেতা সমাগম কম থাকায় গরুর কাঙ্খিত দাম উঠছে না। ফলে হতাশ খামারী ও স্থানীয় ব্যাপারীরা। তবে হাটে আসা ক্রেতারা বলছেন গরুর দাম তাদের নাগালের মধ্যেই রয়েছে। হাটে বেচাকেনা তুলনামুলক কম থাকায় লোকসানের শংকায় ভুগছেন ইজারাদাররা।

প্রতি সপ্তাহে রবিবার ধামইরহাট উপজেলার প্রাণ কেন্দ্রে বসে উপজেলার সর্ববৃহৎ পশুর হাট। কোরবানী ঈদের আগে বিভিন্ন জেলার ব্যাপারীসহ কোরবানী দিতে ইচ্ছুক ক্রেতাদের সমাগমে জমজমাট হয়ে ওঠে এ হাট কিন্তু করোনার কারণে এ বছর হাটের চিত্র ঠিক উল্টো। হাটে যেসব খামারী ও স্থানীয় ব্যাপারী গরু নিয়ে আসছেন তারা গরুর কাঙ্খিত দাম পাচ্ছেন না ফলে হতাশা ও শংকায় ভুগছেন তারা।

এবার গরুর দাম নাগালের মধ্যে থাকায় গরু কিনতে আসা ক্রেতারা খুশি। কোরবানী দেবার জন্য গরু কিনতে আসা আব্দুল গফুর বলেন, গরু কিনতে এসে হাটে দালালদের অত্যাচারে ক্লান্ত হয়ে যাচ্ছি তবুও আর কি করার দামে দরে হলে একটা গরু কিনবো। 

স্থানীয় গরু খামারি আবু মুসা বলেন, লোকবল দিয়ে গরুর পরিচর্চা ও প্রতিদিন খাবারের যেভাবে দাম বাড়ছে সেই অনুপাতে বাজারে গরুর দাম অনেক কম। বাজারে বড় কোন ক্রেতা নেই, ঢাকা চিটাগাং থেকে যে সকল ক্রেতা আসে করোনার জন্য এবার তারাও আসেনি ফলে গরুর দাম পাবো কিনা তা নিয়ে চিন্তায় আছি।

অপর খামারী মোছাদ্দেকুর রহমান পিন্টু বলেন, এবার ২০টি মহিস ও ৩টি বিদেশী গরু কোরবানীর জন্য মোটাতাজা করেছি কিন্তু বাজারে এসে দেখি কোরবানী করার মত লোক খুব কম, বাহিরের তেমন ক্রেতা আসেনি, গরুর যে দাম বলছে আগামীতে আর কেউ গরু মোটাতাজা করবে না, এবার দেশের বাহির থেকে গরু আসলে অমোদের পথে বসতে হবে।

এ বিষয়ে হাট ইজারাদার মেহেদী হাসান বলেন, এবার করোনাকালে হাটে গরুর আমদানি ও ক্রেতা দুটোই কম। আশা করি কিছুক্ষনের মধ্যে ক্রেতা বিক্রেতার সমাগম ঘটবে বেচাকেনাও বারবে।

ওসি আব্দুল মমিন বলেন, করোনাকালে কোরবানীর হাটে নিরাপত্তার বিষয়ে কোন ছাড় নেই। হাটের তিনটি প্রবেশ মুখে অমাদের টিম কাজ করছে। মাস্ক ছাড়া আমরা ক্রেতা বিক্রেতাদের কাওকেই ভেতরে প্রবেশ করতে দিচ্ছিনা। যাদের মাস্ক নেই তাদেরকে একটিকরে মাস্ক ফ্রী দিচ্ছি। একটি ওয়াস টাওয়ার করে দিয়েছি সেখানে হাত ধোয়া বাধ্যতা মুলক করা হয়েছে। জাল টাকা ধরার জন্য এটি স্ক্যানার মেশিন বসিয়েছি। জনগণের নিরাপত্তার কথা ভেবে যা যা করা দরকার আমরা তার সকল ব্যবস্থা গ্রহন করেছি।

মন্তব্য লিখুন :