জবির প্রাণিবিদ্যা বিভাগের এনএসসি ক্লাবের নেতৃত্বে আসাদ-অন্ত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রকৃতি বিষয়ক সংগঠন ‘ন্যাচার স্টাডি অ্যান্ড কনজারভেশন ক্লাব’ (এনএসসি) এর নতুন কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটির সভাপতি হিসেবে বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের আসাদ উল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ২০১৫-১৬ সেশনের দুর্জয় রাহা অন্তু দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত হয়েছেন।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) অনলাইনে অনুষ্ঠিত ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা থেকে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। ক্লাবটির উপদেষ্টা শ্রীমান দিলীপ কুমার দাশ ২০২১-২২ বছরের জন্যে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি ঘোষণা করেন।

কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন, সহ সভাপতি শিমুল নাথ ও আহসান রাসেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সজিব বিশ্বাস, সাংগঠনিক সম্পাদক পরিশা আক্তার, উপ সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সাব্বির ইসলাম সানি, কোষাধ্যক্ষ হাবিবা জান্নাত কনামনি, শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক অপূর্ব মানিক দে, দপ্তর সম্পাদক মোঃ তানজিলুর রহমান খান, আইটি সম্পাদক মোঃ সম্রাট আকবর, প্রকাশনা সম্পাদক ফারিয়া জাহান, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক ফারজানা সুলতানা। এছাড়াও সদস্য হিসেবে আছেন মোঃ ইফতেখারুল পনি, কমলেশ রায়, মোঃ শরিফুল ইসলাম, মোঃ আশিক, মাহফুজুর রহমান, মোঃ আল-আমিন, মোঃ রাশেদুল ইসলাম, দীপ্ত সাহা, খাদিজা তুল কোবরা, কেয়া দাশ, মোঃ হামিদুর রহমান নাইম, মোঃ হাফিজুর রহমান খান।

ক্লাবটির সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি আসাদ উল্লাহ বলেন, “এই ক্লাবের অনেক সদস্যের মধ্যে প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন একজন ব্যক্তি মাত্র। আমাদের ক্লাবের লক্ষ্য অর্জনে আমাদের সবার নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে।”

সাধারণ সম্পাদক দুর্জয় রাহা অন্তু বলেন, “আমার এই দায়িত্ব প্রাপ্তিতে আমি অত্যন্ত খুশি। আমি সততা, দক্ষতা ও কর্তব্যনিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে চেষ্টা করবো। এছাড়া ক্লাব সদস্যরা যাতে বছরের বিভিন্ন সময় একত্র হয়ে পারিবারিক আবহে সময় কাটাতে পারেন সে চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।”

উল্লেখ্য, ২০১০ সালে ক্লাবটি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রাণ ও প্রকৃতির সংযোগ রক্ষার্থে বিভিন্ন সচেতনতা মূলক অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা, সেমিনার, কর্মশালা, গবেষণা ও প্রকৃতি বিষয়ক নানান প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে। ক্লাবটির সুদীর্ঘ পথচলায় বিশ্ব পরিযায়ী পাখি দিবস, ব্যাঙ দিবস, বিশ্ব ভোঁদড় দিবস, বিশ্ব মৎস্য দিবসের মতো দিবস গুলো নানান কর্মকান্ডের মাধ্যমে উদযাপিত হয়ে আসছে। তাছাড়া এই বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় (বার্ড রেস, বার্ড আইডেন্টিফিকেশন, প্রজাপতি আইডেন্টিফিকেশন, আলোকচিত্র প্রদর্শন, স্টল প্রদর্শন, প্রাণি আইডেন্টিফিকেশন, প্রাণি বিষয়ক বিতর্ক ইত্যাদি) অংশগ্রহণ ও পুরস্কার প্রাপ্ত হয়ে নিজের বিভাগ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্যে সুনাম বয়ে এনেছেন।

মন্তব্য লিখুন :