হাল্ট প্রাইজের ইভেন্ট পার্টনার জাককানইবি'র ৬ উদ্যোক্তা

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে টানা চতুর্থবারের মতো ২০২১-২২ সালেও হাল্ট প্রাইজের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অন্যান্য বারের মতো এবারের হাল্টের কার্যক্রম একটু ভিন্নধর্মী। কেননা, এবার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হাল্ট প্রাইজকে সহযোগিতা করছে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়েরই ছয় উদ্যোক্তা।

তারা বর্তমানে পড়াশোনার পাশাপাশি নিজেরা উদ্যোক্তা হয়ে উঠেছেন। উদ্যোক্তাগণ হলেন- সারজীল হাসান-লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালনা বিদ্যা বিভাগ, ফাইজাহ্ ওমর তূর্ণা-ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ, মহসিনা স্বর্ণা-পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ, আসাদুজ্জামান বাপ্পী-মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ, আসিফ রাব্বি(শিখন)-স্থানীয় সরকার এবং নগর উন্নয়ন বিভাগ এবং আসিফুল হক আসিফ-চারুকলা বিভাগ।

ছয় জন উদ্যোক্তাকেই হাল্ট প্রাইজে স্পন্সর করার কারণ জানতে চাওয়া হয়। এ নিয়ে সবাই মতামত প্রদান করেন।

অন ক্যাম্পাস ইভেন্টে টাইটেল স্পন্সর হিসেবে থাকছে 'Chill পুরুষ' যার উদ্যোক্তা সারজীল হাসান। সারজীল হাসানকে স্পন্সর করার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন,'Chillপুরুষ' সববসময় তরুণ প্রজন্মকে গঠনমূলক কাজের জন্য উৎসাহিত করে। তরুণরাই দেশের ভবিষ্যৎ পথপ্রদর্শক এবং ভোক্তা। টিম Chillপুরুষ হাল্ট প্রাইজের টাইটেল স্পন্সর করতে পেরে খুবই আনন্দিত।

"আরশিলতা" প্রতিষ্ঠানের মালিক ফাইজাহ্ ওমর তূর্ণা বলেন, তরুণ সমাজকে একধাপ এগিয়ে যাওয়ার প্লাটফর্ম হাল্ট প্রাইজ। আমরা এ ধরনের প্রোগামে যুক্ত হয়েছি যেন হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস তরুণ সমাজকে যুক্ত করে তাদের আইডিয়া ডেভেলপমেন্ট করে তাদেরকে স্বনির্ভর করতে সহায়তা করতে পারে।

কো স্পন্সর হিসেবে থাকছে আসিফ রাব্বি (শিখন) এর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ফ্রাইডে গ্যাজেটজ। তিনি বলেন, প্রথমত আমি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং সববসময় চেষ্টা করি ভালো কাজগুলোতে উৎসাহ দেওয়ার।এরই প্রেক্ষিতে হাল্ট প্রাইজে যুক্ত হওয়া।

এছাড়াও এবারের কো স্পন্সর হিসেবে থাকছে আসিফুল হক আসিফ এর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মটকা আঁচ। তিনি বলেন, হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস হলো শিক্ষার্থীদের জন্য একটা বড় সুযোগ। তারা বিভিন্ন ধরনের দক্ষতা শেখার পাশাপাশি ব্যবসায় উৎসাহিত করছে। তাই তাদের এই মহান কাজকে ত্বরান্বিত করতে আমরা পৃষ্ঠপোষকতা করতে চেয়েছি। এ নিয়ে 'তৈয়ার' এর উদ্যোক্তা মহসিনা স্বর্ণা বলেন,আমি নিজেও একজন শিক্ষার্থী। ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসেবে তাদের উৎসাহ দিতে হাল্ট প্রাইজে থাকার ইচ্ছে পোষণ করেছি।

'এঙ্কর ক্লথিং' থেকে আসাদুজ্জামান বাপ্পি হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাসে যুক্ত হওয়ার কারণ হিসেবে বলেন, হাল্ট প্রাইজ এমন একটি সংস্থা যা বিশ্বব্যাপী উদ্যোক্তাদের নিয়ে কাজ করছে এবং বিশ্ব অর্থায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। হাল্ট প্রাইজের মাধ্যমে তরুণদের উৎসাহিত করতে এর সাথে যুক্ত হয়েছি।

এ ব্যাপারে ক্যাম্পাস ডিরেক্টর আবু হাইসাম হিমেল বলেন, ক্যাম্পাসের উদ্যোক্তাদের পাশে পেয়ে আমি অত্যন্ত আনন্দিত এবং এই পদক্ষেপ আমার কাছে গর্বের বিষয়। উদ্যোক্তা'রা নিজেদের পাশাপাশি অন্যকে উৎসাহিত করছে,এভাবেই তরুন প্রজন্মের হাত ধরে সমাজ পরিবর্তন হবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

মন্তব্য লিখুন :