সশরীরে ক্লাসে ফিরেছে কুবি শিক্ষার্থীরা

করোনা পরিস্থিতিতে দীর্ঘ ১৯ মাসেরও বেশী সময় বন্ধ থাকার পর আজ মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) থেকে সশরীরে ক্লাসে ফিরছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে লাল মাটির এ আঙ্গিনা।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পেলে গত বছরের ১৮ মার্চ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে মাঝে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩ দফায় সশরীরে চূড়ান্ত পরীক্ষা নেওয়া হলেও স্থগিত ছিলো সশরীরে পাঠদান কার্যক্রম। তবে সর্বশেষ সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২৭ অক্টোবর থেকে হল খোলা এবং আজ থেকে সশরীরে পাঠদান শুরুর ঘোষণা দেওয়া হয়।

দীর্ঘদিন পর সশরীরে ক্লাস শুরু হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী রাজিব সরকার বলেন, "ক্যাম্পাসে আসার কিছু দিনের মধ্যে করোনার কারনে দীর্ঘ দিন ক্যাম্পাস বন্ধ ছিলো, যার ফলে ক্যাম্পাসে অনেক কিছুই পাওয়া হয়নি। আর অনলাইন ক্লাস করার জন্য পড়াশোনায় অনেকটা প্রভাব পড়েছে। সশরীরে ক্লাস করলে পড়া বুঝতে সুবিধা হয় আর পড়ার জন্য আগ্রহ কাজ করে যেটা অনলাইনে ক্লাস করে হয়নি। এখন সশরীরে ক্লাস শুরু হওয়াতে ব্যাচমেট ও সিনিয়রদের সাথে ভালো একটা বন্ডিং হবে। যে কমিউনিকেশন গ্যাপ তৈরী হয়েছে তা ধীরে ধীরে কমতে থাকবে।"

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড.মো.আবু তাহের বলেন, "বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২৭শে অক্টোবর আমরা সকল আবাসিক হল খুলে দিয়েছি এবং আজ থেকে ক্যাম্পাস খুলে দিয়েছি। সবাইকে যথাযথ স্বাস্থ্য বিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে যাওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।"

উল্লেখ্য, গত ২৬ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮১ তম সিন্ডিকেট সভায় ২ নভেম্বর থেকে সশরীরে পাঠদান কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন । এরই প্রেক্ষিতে আজ খুলে দেওয়া হয়েছে কুবির সকল বিভাগের একাডেমিক কার্যক্রম।

মন্তব্য লিখুন :