শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে দেবে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে সরকার। যা এখনো চলমান রয়েছে। এরমধ্যে কয়েক দফায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার চেষ্টা করেও শেষ পর্যন্ত সম্ভব হয়নি। এমন অবস্থায় গতবারের এইচএসসি পরীক্ষাও নেওয়া যায়নি।

পরে জেএসসি ও এসএসসির ফলাফলের ওপর মূল্যায়নের ভিত্তিতে ফলাফল দেওয়া হয়েছে। এবারও সময়মতো পরীক্ষা নেওয়া যাচ্ছে না। দীর্ঘদিন ধরে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান না হওয়ায় মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা।

এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, সরকার বিশেষ পরিকল্পনার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের করোনার ক্ষতি পুষিয়ে দেবে। এ লক্ষ্যে তার মন্ত্রণালয় কাজ করে যাচ্ছে।

শনিবার বিকালে ঢাকার একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত রোটারি ইন্ট্যারন্যাশনাল বাংলাদেশ জেলা-৩২৮১ এর অভিষেক অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, করোনা মোকাবিলায় রোটারিসহ দেশের বেসরকারি মানবিক প্রতিষ্ঠানগুলো সক্রিয়ভাবে অবহেলিত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। সরকার শ্রদ্ধাভরে তাদের এই অবদান স্মরণ করে।

রোটারি গভর্নর ব্যারিস্টার মোতাসিম বিল্লাহ ফারুকীর সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, রোটারির মহাসচিব টিপু খান, ইভেন্ট চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন বিপ্লব প্রমুখ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের জন্য রোটারির ৫০০ ক্লাবের মাধ্যমে ৪২ কোটি টাকা ব্যয়ে যে কমফোর্ট জোন স্থাপন করবে তা শিক্ষাব্যবস্থায় স্বাস্থ্যকর পরিবেশ সৃষ্টিতে ব্যাপক অবদান রাখবে।

মন্তব্য লিখুন :