নগ্নতার ভিডিওটি ভুয়া হলেও, লজ্জিত রাধিকা

রাধিকা আপ্টে। বলিউডের চাকচিক্যময় পৃথিবীতে ‘সাহসী’ স্বভাবের সুবাদে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন এই মরাঠি কন্যা। তবে অতীতে এক সময় এই অভিনেত্রীও গুটিয়ে নিয়েছিলেন নিজেকে। চার দেওয়ালের ঘেরাটোপে লুকিয়ে ছিলেন তিনি।

কিন্তু কেন?

রাধিকার অন্তরালে চলে যাওয়ার কারণ ছিল কয়েক মুহূর্তের একটি ভিডিও। সেখানে যে মহিলাকে নগ্ন অবস্থায় দেখা যাচ্ছিল, তাঁকে রাধিকা বলে ধরে নিয়েছিলেন অনেকেই। ভিডিওটি আসলে অভিনেত্রীর ছবি ‘ক্লিন শেভেন’-এর একটি ক্লিপ।

এক পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রাধিকা বলেছেন, “আমি যখন ক্লিন শেভেন-এর জন্য শ্যুট করছিলাম, আমার নগ্নতার একটি ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ে। আমাকে বাজে ভাবে ট্রোল হয়েছিলাম। সেই ঘটনাটি আমার মনে প্রভাব ফেলেছিল। আমি বাড়ি থেকে ৪ দিনের জন্য বেরতে পারিনি। সংবাদমাধ্যম আমায় নিয়ে কী বলছে, সে সব নিয়ে ভাবিনি। কিন্তু আমার গাড়ি চালক, চৌকিদার প্রত্যেকে আমাকে ওই ছবিগুলো দিয়ে চিনছিল।”

রাধিকা জানিয়েছেন, ওই ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে তিনি ছিলেন না। তার কথায়, “বিতর্কিত ছবিগুলো পোশাকহীন অবস্থায় তোলা নিজস্বী। ভাল দৃষ্টিসম্পন্ন যে কোনও মানুষ বলে দিতে পারবেন ওই ছবিগুলোতে থাকা ব্যক্তি আসলে আমি নই। আমার মনে হয় না এই বিষয়গুলিতে কিছু করার আছে বা করা উচিৎ। আমি এগুলো এড়িয়ে যাই। এর পর আমি যখন 'পার্চড' ছবিতে পোশাক খুলি তখন মনে হল আমার আর লুকিয়ে রাখার মতো কিছু নেই।”

সব বিতর্ককে তুড়িতে উড়িয়ে নিজের গতিতে এগিয়েছেন রাধিকা। তার পেশাগত জীবনের লেখচিত্রও একটানা ঊর্ধ্বমুখী। গত বছর নেটফ্লিক্সের ‘রাত আকেলি হ্যায়’ ছবিতে তাঁর অভিনয় আরও একবার মুগ্ধ করেছিল দর্শককে।

মন্তব্য লিখুন :