ভারতে শোকার্ত মেয়ের বাবার চিতায় ঝাঁপ

ভারতে রাজস্থানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাবার মৃত্যুতে শোক সহ্য করতে না পেরে বাবার চিতার আগুনেই ঝাঁপ দিলেন মেয়ে। (সূত্র: প্রথম আলো)

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, রাজস্থানের ৩৪ বছর বয়সী এক নারী বাবার চিতার আগুনে ঝাঁপ দিয়ে গুরুতর দগ্ধ হন। তাঁর বাবা দামোদর দাশ শারদা কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

বুধবার (৫ এপ্রিল) পুলিশ জানায়, ৭৩ বছর বয়সী দামোদর দাশ করোনায় আক্রান্ত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাজস্থানের বারমার জেলার একটি হাসপাতালে মারা যান। 

দামোদরকে দাহ করার সময় হঠাৎ চিতার ওপর ঝাঁপ দেন তাঁর মেয়ে চন্দ্রা শারদা। দামোদরের তিন মেয়ের মধ্যে সবার ছোট চন্দ্রা।

বার্তা সংস্থা পিটিআইকে পুলিশ জানায়, উপস্থিত লোকজন চন্দ্রাকে চিতা থেকে উদ্ধার করলে প্রাণে বেঁচে যান তিনি। তবে তাঁর শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে যায়। শুরুতে পার্শ্ববর্তী এক হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়। পরবর্তী সময়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য যোধপুরের একটি হাসপাতালে তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা প্রেম প্রকাশ বলেন, ‘দামোদর দাশের তিন মেয়ে। তাঁর স্ত্রী কিছুদিন আগে মারা যান। ছোট মেয়েটা দমোদরকে দাহ করার সময় চিতার আগুনে ঝাঁপ দেন। 

করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ হওয়ার পর গত রোববার জেলা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন দামোদর। দুই দিন পর তাঁর মৃত্যু হয়। বাবাকে শেষবিদায় দিতে শ্মশানে উপস্থিত ছিলেন তাঁর মেয়ে।

মন্তব্য লিখুন :