ইসরায়েলি হামলায় গাজায় শতাধিক নিহত

চলমান ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাতে ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় এখন পর্যন্ত একশোর'ও অধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

হামাস ও ইসরায়েলের পক্ষ থেকে পাল্টাপাল্টি আক্রমণ চলমান রয়েছে। অন্যদিকে লেবানন থেকে ইসরায়েলের দিকে রকেট ছোড়ার দাবি করেছে তেল-আবিব।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি হামলায় বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সেখানে ১০৯ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে ২৮ শিশু ও অন্তত ১১ নারী রয়েছেন। আর গত সোমবার ইসরায়েলি আক্রমণ শুরুর পর থেকে সেখানে আহত মানুষের সংখ্যা ৫৮০ জন। আহতদের চিকিৎসা দিতে সেখানকার হাসপাতালগুলো হিমশিম খাচ্ছে। কারণ করোনা রোগীর কারণে আগে থেকেই হাসপাতালগুলোর অবস্থা ছিল নাজেহাল।

আজ-জাজিরার খবরে বলা হয়, ইসরায়েলের বাহিনী তাদের বিমান হামলা ও গোলা বর্ষণ অব্যাহত রেখেছে। অন্যদিকে হামাস গাজা থেকে রকেট ছোড়া চালিয়ে যাচ্ছে। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, তাঁদের বাহিনী গাজায় প্রায় এক হাজার লক্ষ্যবস্তুতে ইতিমধ্যে হামলা চালাতে সক্ষম হয়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, হামাসের রকেট হামলায় ইসরায়েলে সাতজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার গাজা সীমান্তে ইসরায়েল তাদের দুটি পদাতিক ও একটি সাঁজোয়া ইউনিট মোতায়েন করে। পাশাপাশি আরও সাত হাজার সেনাকে প্রস্তুত হতে বলা হয়েছে। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, বৃহস্পতিবার লেবানন থেকে তিনটি রকেট ইসরায়েলের দিকে ছোড়া হয়। ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রকেটগুলো ভূমধ্যসাগরে পতিত হওয়ায় তাদের কোনো ধরনের ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি। লেবাননের একটি নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছেন, ওই রকেটগুলো সেখানকার উপকূলীয় কেলাইলেহ অঞ্চল থেকে ছোড়া হয়েছে।

২০১৪ সালে গাজায় ইসরায়েলিদের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের সাত সপ্তাহের যুদ্ধের পর এবারই সবচেয়ে বড় ধরনের সংঘাত হচ্ছে।


(সূত্র: প্রথম আলো)

মন্তব্য লিখুন :