পুনরায় ভোটযুদ্ধে মমতা

নিজের ফেলে আসা দক্ষিণ কলকাতার ভবানীপুর আসনে ভোটযুদ্ধে নামবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ আসন থেকে উপনির্বাচনে লড়ার প্রস্তুতি নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই আসনেরই বিধায়ক ছিলেন তিনি। শুক্রবার দুপুরে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় রাজ্য বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে তাঁর ভবানীপুর আসনের বিধায়ক পদের পদত্যাগপত্র তুলে দেন। ফলে এটা মোটামুটি নিশ্চিত ভবানীপুর আসন থেকেই উপনির্বাচনে লড়তে যাচ্ছেন মমতা।

শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ জানাতে গিয়ে মমতা ভবানীপুর আসন ছেড়ে নন্দীগ্রাম আসনে লড়েন। ভবানীপুর আসনে লড়েন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তৃণমূল প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় টালিউড তারকা রুদ্রনীল সেনকে ২৮ হাজার ৭১৯ ভোটে হারিয়ে দেন এই আসন থেকে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস বিপুল ভোটে রাজ্যের ২৯৪টি আসনের মধ্যে ২১৩টি আসনে জিতছে। তবে মমতা নিজে জিততে পারেননি কোনো আসনে। পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম আসনে তাঁরই মন্ত্রীসভার সাবেক সদস্য শুভেন্দু অধিকারীর কাছে হেরে যান মাত্র ১ হাজার ৯৫২ ভোটে।

ভারতের সংবিধান অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসলেও নিয়ম হলো ৬ মাসের মধ্যে মমতাকে পশ্চিমবঙ্গের যে কোনো একটি বিধানসভা আসন থেকে জয়ী হয়ে আসতে হবে বিধানসভায়। 


(সূত্র: প্রথম আলো) 

মন্তব্য লিখুন :