উড়োজাহাজে বিয়ে!

অদ্ভুত রকমের বিয়ের ঘটনার সাক্ষী হয়েছেন কিংবা শুনেছেন এমন অনেকেই আছেন। কিন্তু আকাশে বিয়ের করার ঘটনা শুনলে চমকে উঠাই স্বাভাবিক।

এবার তেমনি এক ঘটনা ঘটলো ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে গত রবিবার। এক যুগল আকাশে উড়ে উড়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। এ জন্য ভাড়া করেন পুরো একটি উড়োজাহাজ। পরিবার–পরিজন ও আত্মীয়স্বজন নিয়ে মধ্যাকাশেই মহা ধুমধামে মালা বদল করেন তাঁরা। কিন্তু ঝামেলা বেঁধেছে করোনার স্বাস্থ্যবিধি না মানায়। এ জন্য তাঁরা শাস্তির মুখে পড়তে যাচ্ছেন। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের আরোপ করা লকডাউনের মধ্যেই বিয়ে করতে তামিলনাড়ুর মাদুরাই শহরের ওই তরুণ–তরুণী স্পাইস জেটের একটি উড়োজাহাজ ভাড়া করেন। মাদুরাই থেকে বেঙ্গালুরু পর্যন্ত যাওয়ার পথে মধ্যাকাশেই বিয়ের কাজ সারেন তাঁরা। বোয়িং–৭৩৭ মডেলের উড়োজাহাজটিতে বর–কনে ছাড়াও তাঁদের পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠজনেরা উপস্থিত ছিলেন। ওই বিয়ের ছবি ও ভিডিও প্রকাশের পর তা ইন্টারনেটে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, উড়োজাহাজের মধ্যেই বিয়ের সব রীতি পালন করা হচ্ছে। অনেককে এ সময় আনন্দ–ফুর্তি করতেও দেখা যায়। অধিকাংশ লোকের মুখে মাস্ক ছিল না। খালি ছিল না উড়োজাহাজের কোনো আসনও। সামাজিক দূরত্বের কোনো বালাই ছিল না সেখানে।

ঘটনাটি ভারতের বিমান চলাচল পরিদপ্তরের (ডিজিসিএ) চোখ এড়ায়নি। মধ্যাকাশে বিয়ের অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের তদন্ত শুরু করেছে তারা। ডিজিসিএর কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের খবরে বলা হয়েছে, ওই ঘটনায় এয়ারলাইনস স্পাইস জেট ও মাদুরাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে পুরো প্রতিবেদন চাওয়া হয়েছে। ওই ফ্লাইটের ক্রুকে দায়িত্বের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

স্পাইস জেটের এক মুখপাত্র বলেছেন, বিবাহ–পরবর্তী অনুষ্ঠান আয়োজনের কথা বলে ২৩ মের (রোববার) জন্য উড়োজাহাজটি ভাড়া করা হয়। উড়োজাহাজে ওঠার পর যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়টি অবগত করা হয়। এ ছাড়া উড়াল দেওয়ার পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে যাত্রীদের বারবার অনুরোধ করা হলেও তাঁরা তা মানেননি।

 

(সূত্র: প্রথম আলো) 


মন্তব্য লিখুন :