মোদিকে হটাতে হবে: মমতা

দেশকে রক্ষা করতে মোদিকে হঠাতে হবে এবং সে লক্ষ্যে আন্দোলন চালু রাখতে আহ্বান জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এজন্য তিনি নতুন করে কাজ শুরু করছেন বলে জানান। গতকাল বুধবার তিনি এসব কথা বলেছেন।

গতকাল দিল্লির কৃষক আন্দোলনের নেতা রাজেশ টিকায়েত অন্য নেতাদের নিয়ে কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রী মমতার সঙ্গে দেখা করেছেন। এ সময় মমতা বলেন, ‘কৃষি আইন বাতিল না হওয়া পর্যন্ত ভারতজুড়ে চলবে এ আন্দোলন। যত দিন না কৃষক আন্দোলনের দাবি পূরণ হচ্ছে, তত দিন পর্যন্ত আমরা এই আন্দোলনের পক্ষে সমর্থন জুগিয়ে যাব।

মমতা আরও বলেন, ‘দেশকে বাঁচাতে গেলে আমাদের সবাইকে এক হতে হবে। দেশের অবিজেপি সরকারকে এক মঞ্চে এনে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে মোদির বিরুদ্ধে। এ লক্ষ্যে দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় আমাদের আজ অবিজেপি রাজ্যগুলোকে এক হতে হবে। গড়তে হবে যৌথ মঞ্চ। এই যৌথ মঞ্চ হলে মোদি আর অন্যান্য অবিজেপিশাসিত রাজ্যকে হয়রানি করতে পারবেন না।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের আশু দরকার দেশের অবিজেপি সরকার, সেই সঙ্গে বিজেপিশাসিত রাজ্যের বিরোধী দলগুলোকে নিয়ে একটি যৌথ মঞ্চ গড়া। এই যৌথ মঞ্চই ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে এক হয়ে মোদিকে হটাবে।’  

মমতা আরও বলেন, ‘এই মোদি সরকার আমাদের অর্থনীতি ধ্বংস করেছে, কৃষি, শিল্প, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যক্ষেত্রে চরম দুর্গতি এনেছে। এই সরকারকে হটানোর জন্য আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন জারি রাখতে হবে দেশজুড়ে।’

মমতা সম্প্রতি তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সম্পাদক করেছেন নিজের ভাতিজা ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। অভিষেকও ঘোষণা দিয়েছেন, তাঁরও প্রধান লক্ষ্য হবে মোদিকে শাসনক্ষমতা থেকে বিদায় করা। আনতে হবে মোদিবিরোধী একটি গণতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপেক্ষ সরকার, যে সরকার ভবিষ্যতে ভারতের চালিকা শক্তি হবে।

পশ্চিমবঙ্গের সর্বশেষ বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হয়েছে মমতার দল। যে বিজেপি এবার ২০০ আসনে জেতার ঘোষণা দিয়েছিল, তারা এবারের ভোটে মুখ থুবড়ে পড়েছে। পেয়েছে ৭৭টি আসন।


(সূত্র: প্রথম আলো) 

মন্তব্য লিখুন :