প্রথমবারের মতো লেবাননে যাচ্ছে ইরানের তেল, সতর্ক হিজবুল্লাহ

যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধ এবং ইসরায়েলের সমালোচনার মধ্য দিয়ে ইরান তেল পাঠাচ্ছে লেবাননে। এরই মধ্যে লেবাননগামী ইরানের প্রথম তেল ট্যাংকারটি ভূমধ্যসাগরের পানিসীমায় প্রবেশ করেছে। ইরান থেকে দ্বিতীয় জাহাজটিও একই গন্তব্যে রওনা হয়েছে। তেলবাহী জাহাজ যাতে নির্বিঘ্নে লেবাননে পৌছতে পারে সেজন্য সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে হিজবুল্লাহর সদস্যরা।

জানা যায়, তেল নিয়ে উভয় দেশই বিপদে রয়েছে। একেদিকে ইরান তার তেল বিক্রি করতে পারছে না। দেশটির অর্থনীতিতে এর মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। জিনিসপত্রের দাম আকাশচুম্বী হয়ে আছে কয়েক বছর ধরেই। অন্যদিকে নানামুখী ষড়যন্ত্র ও মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে জ্বালানি তেলের সংকটে লেবাননের জনগণের ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা।

গত কয়েকদিন ধরে জ্বালানির অভাবে লেবাননের কার্যক্রমই অনেকটাই বন্ধ হয়ে গেছে। এ অবস্থায় দুই দেশ (ইরান-লেবানন) মিলে এ সংকট মেটানোর পথ খুঁজে বের করেছে। প্রথমবারের মতো লেবাননে তেল ও তেলবাহী জাহাজ পঠিয়েছে ইরান। ট্যাংকার ট্রাকার্স ডট কম এ সম্পর্কে জানায়, ইরানের পক্ষ থেকে তারা দুটি জাহাজ পাঠানোর সিগন্যাল পেয়েছে। লেবাননের বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে এ তেল ব্যবহার করা হবে।

এদিকে কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, প্রথম তেল ট্যাংকার ভূমধ্যসাগরের পানিসীমায় প্রবেশের পর হিজবুল্লার যোদ্ধারা সর্বোচ্চ পর্যায়ের সতর্কাবস্থায় রয়েছেন। ইসরায়েল যাতে তেলবাহী ট্যাঙ্কার সম্পর্কে কোনো রকমের ভুল পদক্ষেপ গ্রহণ না করতে না পারে সেজন্যই তাদের এই সতর্কতামূলক অবস্থান।

হিজবুল্লাহ মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ শক্ত অবস্থান নিয়ে গত ১৯ আগস্ট বলেছেন, লেবাননের তেল সংকট সমাধানের জন্য ইরান থেকে তেল আমদানির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং সমুদ্রে ওই জাহাজকে লেবাননের ভূখণ্ড হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

মন্তব্য লিখুন :