কংগ্রেসে যোগ দিলেন আলোচিত কানহাইয়া কুমার

ভারতের আলোচিত তরুণ বামপন্থি নেতা কানহাইয়া কুমার কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। মঙ্গলবার কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিআই) ছেড়ে রাহুল গান্ধীর হাতে কংগ্রেসে যোগ দেন তিনি।

এদিন সকাল থেকেই রাজধানী দিল্লিতে কংগ্রেস কার্যালয়ের বাইরের দিকটা কানহাইয়া কুমারকে স্বাগত জানাতে পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গিয়েছিল। কংগ্রেসের নেতা কর্মীদের মধ্যেও উৎসাহ ছিল ব্যাপক।

এরপর দিল্লির শহিদ-ই-আজম ভগৎ সিং পার্কে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে মুষ্ঠিবদ্ধ হাত তুলে ধরেন কানহাইয়া কুমার। ভগৎ সিংয়ের জন্মদিনের পরই কংগ্রেসে যোগ দিলেন তিনি।

এনডিটিভি জানায়, কংগ্রেসে যোগদানের পর এক সংবাদ সম্মেলনে কানহাইয়া বলেছেন, কংগ্রেস শুধু একটা দল নয়, এটি দেশের সবচেয়ে পুরনো ও সর্বাধিক গণতান্ত্রিক দল। শুধু আমি নই, অনেকেই মনে করেন, কংগ্রেস ছাড়া এই দেশ বাঁচবে না।

একইদিনে গুজরাটের নির্দল বিধায়ক জিগনেশ মেবাণী সরাসরি কংগ্রেসে যোগ না দিলেও দিল্লিতে কানহাইয়ার সঙ্গেই রাহুল গান্ধীর পাশে থেকে দলকে সমর্থন জানিয়েছেন।

দলে যোগ না দেওয়া প্রসঙ্গে মেবাণী বলেছেন, নির্দল বিধায়ক হওয়ার জন্য তিনি টেকনিকাল কারণে কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন না। তবে তিনি কংগ্রেসের আদর্শেরই অংশীদার।

২০১৬ সালে কাশ্মীরের স্বাধীনতাকামী নেতা আফজাল গুরুর ফাঁসি কার্যকরের চতুর্থ বার্ষিকীর দিন জেএনইউ ক্যাম্পাসে আয়োজিত প্রতিবাদ সভা থেকে বিতর্কিত স্লোগান ওঠাকে ঘিরে প্রথম শিরোনামে আসেন কানহাইয়া। তারপর থেকেই দেশের রাজনীতির অংশ হয়ে যান তিনি।

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) ছাত্র সংসদের সভাপতি থেকে জাতীয় রাজনীতিতে প্রবেশ করেছিলেন তিনি। এরপর লোকসভা ভোটে বিহার থেকে সিপিআই-এর টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা এবং বিজেপি’র উচ্চ পর্যায়ের নেতার কাছে পরাজিত হওয়া কানহাইয়ার রাজনৈতিক উত্থান হয়েছে দ্রুতই।

মন্তব্য লিখুন :