খাসজমি ও রাস্তা দখল, চলাচলে বাধা

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের মঙ্গলপুরে সরকারি খাসজমি ও রাস্তা দখল করে গ্রামবাসীর চলাচলে বাধা প্রদানের অভিযোগ উঠেছে। এব্যাপারে দোয়ারাবাজার উপজেলা সহকারী কমিশনারের (ভূমি) নিকট গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে  লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। 

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, দোয়ারাবাজার সদর ইউনিয়নের বাজিতপুর-উমরপুর গ্রামের ২০টি পরিবার দীর্ঘদিন ধরে পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের মঙ্গলপুর বাজারে আসা যাওয়া করে থাকে। বাজারে আসা যাওয়া করতে নদী পারাপারের জন্য বাঁশের সাঁকো ব্যবহার করতে হয়। উত্তর প্রান্তে পান্ডারখাল বাঁধ হতে বাজিতপুর হয়ে নদীর পাড় পর্যন্ত রেকর্ডীয় গোপাট রয়েছে। যা এলজিইডির সরকারি রাস্তা হিসেবে তৈরি হয়ে আছে। গোপাটের মুখ হতে অপরপ্রান্তে পারাপারের জন্য একটি ব্রীজের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। দক্ষিণ পাড়ের জমিটুকু নদী ভরাট সরকারি খাসজমি। যা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের দাগের সাথে সম্পৃক্ত।

অভিযোগ রয়েছে, সম্প্রতি স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের গাজীনগর গ্রামের আক্তারুজ্জামান কালা মিয়া, ডাউকের কাড়া গ্রামের জমির আলী ও বোরহান উদ্দিন সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে সরকারি জমি দখল করে দালান নির্মাণ করেছে। এবং ব্রীজ সংলগ্ন রাস্তায় বাঁশের বেড়া দিয়ে চলাচলে বাঁধা দেওয়া হচ্ছে।

খাসজমি দখলের বিষয়ে জানতে চাইলে মঙ্গলপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহসিলদার মহসিন আহমেদ জানান, 'অভিযোগ সত্য। এখানে খাসজমি দীর্ঘদিন ধরে বেদখল রয়েছে। ২০১৯ সালে অবৈধ দখলদারিত্বের উচ্ছেদের জন্য একটি রিপোর্ট দেওয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে কোনো একশন নেওয়া হয়নি।'

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে দোয়ারাবাজার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়সাল আহমেদ বলেন, 'একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমি সরেজমিনে গিয়ে বিষয়টি খতিয়ে দেখবো।'

মন্তব্য লিখুন :