মোদির সফর বিষয়ে আমরা কর্মসূচি দেইনি : বাবুনগরী

হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, ‘মোদি আসার বিষয়ে আমরা হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে কোনো কর্মসূচি দেইনি। বিভিন্ন বক্তারা তাঁদের বক্তৃতায় মোদির আগমনের বিরোধিতা করেছেন। তা ছাড়া গত ২৬ মার্চ আমাদের কোনো কর্মসূচি ছিল না।’ (সূত্র: কালের কন্ঠ)

সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ২০ মিনিটের এক ভিডিও বার্তায় বাবুনগরী আরো বলেন, ‘গত ২৬ মার্চের পর দেশের বিভিন্ন জায়গায় বেশ কিছু অঘটন ঘটে গেছে। যেগুলোর কোনোটিতেই হেফাজতের কমান্ড ছিল না। হেফাজতে ইসলাম ভাঙচুরে বিশ্বাস করে না। হেফাজতের নেতাকর্মীরা ভাঙচুর, জ্বালাও-পোড়াও করেনি।’

সরকারকে গুজবে কান না দিতে আহ্বান জানিয়ে হেফাজত আমির বলেন, ‘সরকারকে অনেকেই হেফাজতের বিষয়ে ভুল বুঝাচ্ছে। কাউকে ক্ষমতায় বসানো বা নামানো হেফাজতের উদ্দেশ্য নয়। ২০১০ সালে হেফাজত প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এরপর থেকে কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে হেফাজতের সম্পর্ক আছে, এটা কেউ প্রমাণ করতে পারবে না। সরকারকে যারা এসব বিষয়ে বলছে, তারা ডাহা মিথ্যা কথা বলছে। হেফাজত সরকারের সঙ্গে সংঘাতে যাবে না।’

বাবুনগরী বলেন, ‘সরকার আমাদের নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হয়রানি করছে, গ্রেপ্তার করছে। গ্রেপ্তার আতঙ্কে এখন অনেকেই বাইরে রাত যাপন করে। আবার পুরো রাত বাইরে থেকে যখনই তারা সাহির করতে বাড়িতে আসছে, তখনই পুলিশ গিয়ে ধরে ফেলছে। কাউকে কাউকে ইফতার ও তারাবির নামাজের সময়ও গ্রেপ্তার করছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশের অবস্থা এখন ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে। সরকার আমাদের যে নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করেছে, তাদের মুক্তি দিতে হবে। এখন রমজান মাস। এ মাস গরিব-মিসকিনদের সহায়তার মাস। এ মাসে বেশি বেশি ইবাদত করতে হবে।’

বাবুনগরী আরো বলেন, ‘আমাদের হাটহাজারী মাদরাসা-মসজিদে প্রতিদিন দোয়া ইউনুস খতম হয়। সেখানে আমরা প্রতিদিন এক লাখ ২৫ হাজার বার দোয়া ইউনুস পড়ি। এরপর মোনাজাতে দেশের জন্য এবং জনগণের জন্য দোয়া করি, যাতে করোনাসহ অন্যান্য বালা-মুসিবত থেকে দেশ রক্ষা পায়। এ ছাড়া আমি সবাইকে কুনুতে নাজেলা পড়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

মন্তব্য লিখুন :