ঈদের ছুটিতে কর্মীদের কর্মস্থলেই থাকতে হবে

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউন বা বিধিনিষেধের মধ্যে ঈদুল ফিতরের তিনদিনের ছুটিতে সরকারি-বেসরকারি চাকরিজীবী ও শিল্প-কারখানার কর্মীদের কর্মস্থলেই থাকতে হবে। 

মঙ্গলবার (৪ মে) জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এক বিবৃতি এ তথ্য জানিয়েছে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ঢাকায় সংক্রমণের মাত্রা বেশি। ঢাকা থেকে যাতে মানুষ যেতে না পারে সেজন্য ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। নির্দেশনায় এসব বিস্তারিত থাকবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী ১৪ মে ঈদ-উল-ফিতর। আর লকডাউন বেড়েছে রবিবার (১৬ মে) পর্যন্ত। কেউ তিনদিনের বেশি ছুটি দিতে পারবে না। 

তিনি আরও বলেন, ঢাকা থেকে বা ঢাকার আশেপাশে থেকে শ্রমিকরা যদি ঈদের সময় অন্য জায়গায় চলে যায় তবে ম্যাসাকার হবে। সে জন্য আমরা চাচ্ছি সবাই কর্মস্থলেই থাকুক। 

সরকারি-বেসরকারি কর্মজীবীদের কর্মস্থলে রাখতে নির্দেশনা দিয়ে বুধবার (৫ মে) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।  

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গত ৩ মে ভার্চুয়্যাল মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোনও বন্ধ দেওয়া যাবে না। ঈদের ছুটি তিনদিন, এর মধ্যে দু’দিন পড়েছে শুক্র ও শনিবার। শিল্পকারখানাও এই সময়ে বন্ধ দিতে পারবে না। 

মন্তব্য লিখুন :


আরও পড়ুন