২১ দিন পর সড়কে নামছে গণপরিবহন

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় চলমান কঠোর লকডাউনে বিধিনিষেধের ২১ দিন পর আগামীকাল থেকে গণপরিবহন চালু হচ্ছে।

বুধবার (৫ মে) ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির দফতর সম্পাদক সামদানী খন্দকার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এ বিষয়ে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি থেকে জানানো হয়, সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামীকাল থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা মহানগরসহ সব জেলা শহরের মধ্যে গণপরিবহন চলাচল করবে। ঢাকা মহানগরে গণপরিবহন চলাচলে সরকারের নির্দেশনা মেনে সব রুট মালিক সমিতি/পরিবহন কোম্পানির নেতাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে ঈদকে সামনে রেখে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে প্রতি জেলার অভ্যন্তরে গণপরিবহন চালুর কথা জানিয়েছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে আন্তঃজেলা বাস চলবে না বলেও জানান তিনি।।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, “ঈদুল ফিতর সামনে রেখে আগামী ৬ মে থেকে গণপরিবহন চালু করার সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে সরকার।”  তবে শর্ত হল, সিটি সার্ভিস ও জেলার বাস সার্ভিস অন্য জেলায় প্রবেশ করতে পারবে না। বাস ছাড়ার আগে সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুরো বাসে জীবাণুনাশক ছিটাতে হবে। যাত্রী, বাসচালক ও সহকারীকে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক সিট খালি রেখে গণপরিবহন চালাতে হবে।

জেলার গাড়িগুলো জেলার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে এবং কোনোভাবেই জেলার সীমানা অতিক্রম করতে পারবে না বলে জানান ওবায়দুল কাদের। এই বিষয়ে শীঘ্রই প্রজ্ঞাপন আসবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে সচিবালয়ে মন্ত্রীপরিষদ বৈঠকে পরিবহন নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, আন্তঃজেলা পরিবহন বন্ধ থাকবে। শহরের মধ্যে গাড়ি খুলে দেয়া হবে। নৌপরিবহন বন্ধ থাকবে। সীমান্ত বন্ধ থাকবে পরবর্তী নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আকাশ পরিবহন বন্ধ থাকবে।

এদিকে এই সময়ে লঞ্চ এবং ট্রেন চলাচল বন্ধই থাকবে আর এ সিদ্ধান্ত আগামী ১৬ মে পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

মন্তব্য লিখুন :