শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবীতে বিক্ষোভ, পুলিশের বাধা

দীর্ঘদিন ধরে করোনাভাইরাসের কারণে দফায় দফায় ছুটি বাড়িয়ে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ঘোষণা করা হয়েছে। যার কারণে বন্ধ আছে সকল প্রকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং তার সাথে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা এখন মুখ থুবড়ে পড়ার যোগাড় হয়েছে।

বুধবার (১৬ জুন) দুপুর ১টার সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলো। বিক্ষোভে বাধা দিয়েছে পুলিশ।

মিছিলটি শুরু হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি নিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অভিমুখে যাচ্ছিলেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় পুলিশ সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে তাদেরকে আটকে দেয়। তারপর শিক্ষার্থীরা সেখানে বসেই বিক্ষোভ প্রদর্শন করে এবং তাদের দাবি পেশ করেন।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি আল কাদেরী জয় বলেন, অতি দ্রুত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে। শিক্ষার্থীদের বিশেষ বিবেচনায় সবার আগে টিকা দিতে হবে। এ নিয়ে আমরা সরকারের মধ্যে কোনো উদ্বেগ দেখতে পাচ্ছি না। সবকিছু চলছে, শুধু বন্ধ আছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এটা কেন? 

তিনি আরও বলেন, সরকার কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ করারোপ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সিদ্ধান্ত অবশ্যই বাতিল করতে হবে। শিক্ষা নিয়ে কোনো প্রকার বাণিজ্য আমরা মানবো না। এছাড়া করোনাকালে শিক্ষার্থীদের বেতনসহ অন্যান্য ফি মওকুফের আওতায় আনতে হবে।

মন্তব্য লিখুন :