যুক্তরাষ্ট্র ও চীন থেকে এসেছে ৪৫ লাখ টিকা

যুক্তরাষ্ট্র ও চীন থেকে চারটি ফ্লাইটে ৪৫ লাখ ডোজ টিকা বাংলাদেশে এসেছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা যায়, শুক্রবার (২ জুলাই) রাত থেকে শনিবার (৩ জুলাই) সকাল পর্যন্ত টিকা বহনকারী এসব ফ্লাইট ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্র থেকে জানায়, শুক্রবার (২ জুলাই) রাত সাড়ে ১১টায় প্রথম চালানে কোভ্যাক্সের আওতায় যুক্তরাষ্ট্রের মডার্নার সাড়ে ১২ লাখ টিকা ঢাকায় আসে।

এমির‌্যাটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট টিকাগুলো নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী, পররাষ্ট্র সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, মার্কিন রাষ্ট্রদূতসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা এ সময় বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন।

পরে শনিবার (৩ জুলাই) সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে মডার্নার আরও ১২ লাখ ৬৭ হাজার দুইশ ডোজ টিকা ঢাকায় এসে পৌঁছায়। টিকা বহনকারী বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে।

অর্থাৎ এই দুই চালানে মডার্নার ২৫ লাখ ডোজ টিকা এসেছে বাংলাদেশে।

এছাড়া চীনের বেইজিং থেকে শুক্রবার (২ জুলাই) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে সিনোফার্ম উদ্ভাবিত ১০ লাখ ডোজ টিকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। এ সময় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভ্যাকসিন ডেপ্লয়মেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পরে চীন থেকে শনিবার (৩ জুলাই) ভোর সাড়ে ৫টায় সিনোফার্মের আরও ১০ লাখ ডোজ টিকা দেশে এসে পৌঁছায়। বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে টিকাগুলো আনা হয়।

এ নিয়ে চীন থেকে দুটি ফ্লাইটে মোট ২০ লাখ ডোজ টিকা এলো।

সবমিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন থেকে গতরাত থেকে আজ সকাল পর্যন্ত ৪৫ লাখ ডোজ টিকা এসে পৌঁছেছে সরকারের হাতে।

মন্তব্য লিখুন :