জাফরুল্লাহকে হাছান মাহমুদের একহাত

পাকিস্তানকে ক্ষমা করে দিতে বর্তমান সরকারের প্রতি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী যে আহ্বান জানিয়েছিলেন, তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এমন বক্তব্য দেওয়ায় তাকে একহাত নিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭১ সালে পাকিস্তান নিরীহ বাঙালিদের ওপরে ঝাপিয়ে পড়ে যেভাবে হত্যা করেছে, সেজন্য বাংলাদেশের কাছে পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়া উচিত। আমরা ক্ষমা চাইতে বলছি। কিন্তু গতকাল (সোমবার) ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, পাকিস্তানকে ক্ষমা করে দিতে। এ ধরনের বক্তব্য কোনোভাবে কাম্য নয়। এই পুরো বক্তব্য বিএনপির অন্তর্গত।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে এক স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রয়াত দেশ বরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সারাহ বেগম কবরীর স্মরণে এই সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা দাবি জানাচ্ছি- পাকিস্তান বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইবে। কিন্তু জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলছেন, পাকিস্তানকে ক্ষমা করে দিতে। এই পুরো বক্তব্যটা বিএনপির অন্তর্গত। এ ধরনের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাই। আমরা আশা করি, পাকিস্তান বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইবে। ১৯৭১ সালে বাঙালি জাতির সঙ্গে পাকিস্তান যে অন্যায় করেছে, সে অন্যায়ের জন্য পাকিস্তানের ক্ষমা চাওয়া উচিত।

এ সময় কবরীকে স্মরণ করে তিনি বলেন, কবরী আজীবন বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে বুকে ধারণ করেছেন। আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীত হয়ে এমপি হয়েছেন। এত স্বল্প সময় চলে যাবেন ভাবতে পারিনি। তিনি একজন কর্মঠ ব্যক্তি ছিলেন। কবরী শুধু একজন অভিনয় শিল্পী ছিলেন না, আওয়ামী লীগের একজন দক্ষ কর্মীও ছিলেন। সারাজীবন মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করেছেন। সূত্র: যুগান্তর

মন্তব্য লিখুন :