হাথুরুসিংহের বিশাল অংকের ক্ষতিপূরণ দাবি

বাংলাদেশের সাবেক প্রধান কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহে এখন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের গলার কাঁটা। এসএলসি যাকে গিলতেও পারছে না, আবার বের করতেও পারছে না! বিশ্বকাপে ব্যর্থ হওয়ায় হাথুরুসিংহে ও তার সহকারীদের বরখাস্ত করেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের (এসএলসি) এক কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বোর্ড সেক্রেটারি মোহান ডি সিলভা এএফপিকে বলেন, ‘সে (চান্দিকা হাথুরুসিংহে) আমাদের কাছে ৫ মিলিয়ন ডলার দাবি করেছে। সে একটি চিঠির মাধ্যমে এটি জানিয়েছে।’

শ্রীলঙ্কার সংবাদমাধ্যম সানডে আইল্যান্ড তাদের খবরে বলছে, চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮ মাস আগে বাদ দেয়া হয় হাথুরুসিংহেকে। তবে লঙ্কান বোর্ড ৬ মাসের বেতন দিতে চেয়েছিল তাকে। যদিও চুক্তি অনুযায়ী হাথুরুসিংহের বেতন ছিল ৬০ হাজার ডলার। কিন্তু এই অর্থ নিতে অস্বীকৃতি জানান হাথুরুসিংহে।

উল্টো পুরো চুক্তির বেতন দাবি করেন বাংলাদেশের সাবেক এই কোচ। সে হিসেবে ১.৮ মিলিয়ন ডলার পাওয়ার কথা তাঁর। কিন্তু বোর্ডের কাছে ৫০ লাখ ডলার দাবি করে চিঠি পাঠিয়েছেন হাথুরুসিংহে।

মাসিক ৪০ হাজার ডলার ও অন্যান্য সুবিধাসহ মোট ৬০ হাজার ডলারে ২০১৭ সালে হাথুরুসিংহেকে নিয়োগ দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট। ২০২০ সালে চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল হাথুরুসিংহের।

হাথুরুসিংহেকে সরিয়ে মিকি আর্থারকে প্রধান কোচের দায়িত্ব তুলে দেয় শ্রীলংকা। ব্যাটিং কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ারকে। এ ছাড়া বোলিং কোচের পদে অস্ট্রেলিয়ান ডেভিড সকার ও ফিল্ডিং কোচ হিসেবে শেন ম্যাকডারমটকে নিয়োগ দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট।

মন্তব্য লিখুন :