কিউয়িদের ব্রহ্মাস্ত্রে বিদ্ধস্ত বাংলার টাইগাররা

সালটা ২০১১, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মাঠে নামে ১১ সদস্যের নিউজিল্যান্ড দল। দলের হয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে জার্সিতে মাঠে নামে, মাত্র কিছুদিন আগে টেস্ট ক্রিকেটে সদ্য অভিসিক্ত বাঁহাতি বোলার ট্রেন্ট বোল্ট।

ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচেই জোড়া উইকেট শিকার করেন নবাগত এ বিদ্ধংসী বোলার। ক্যারিবীয়দের ৮৮ রানে গুড়িয়ে দিয়ে সেই ম্যাচে দুর্দান্ত এক জয় পায় নিউজিল্যান্ড। সেই ম্যাচের পর থেকে কিউয়িদের দলে নিজের স্থান শক্ত ভাবেই ধরে রেখেছেন ট্রেন্ট বোল্ট।

সময়ের সাথে সাথে প্রতিপক্ষের উইকেট উড়িয়ে দেয়ার নানা রকম কৌশলে নিজেকে সমৃদ্ধ করেছেন প্রতিনিয়ত। তারই ধারাবাহিকতায়, ২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে দলের নির্ভরযোগ্য প্রথম সারির পেসারে পরিণত হন তিনি। ট্রেন্ট বোল্টও দলের বিশ্বাস রক্ষায় নিজের সর্বোচ্চটা উজাড় করে দেন। পরিশ্রম এবং দক্ষতার সংমিশ্রণে ২০১৫ এর বিশ্বকাপে শিকার করেন সর্বোচ্চ ২২টি উইকেট।

করোনা পরবর্তী ডানেডিনে বাংলাদেশ দলের প্রথম ক্রিকেটিয় সফরে কাল হয়ে দাঁড়িয়েছেন, আইসিসি বোলিং র‍্যাংকিং-এ সর্বোচ্চ অবস্থানে থাকা দুঃসাহসী বোলার এবং কিউয়ি দলের ব্রহ্মাস্ত্র ট্রেন্ট বোল্ট।

ম্যাচের প্রথমেই অসাধারণ বোলিং নৈপুণ্যে বাংলাদেশের সেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে ফেরান তিনি। এছাড়াও, তামিম সহ ক্রমান্বয়ে প্রথম সারির তিন ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে ফেরান বোল্ট।

শেষদিকে তাসকিন আহমেদের উইকেটের মাধ্যমে প্রথম একদিনের ম্যাচে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট শিকার করেন তিনি। এতে করে, ব্ল্যাক ক্যাপসদের টার্গেট দাঁড়ায় মাত্র ১৩২ রান।

বোল্টের গর্জে উঠার দিনে, কিউয়ি ব্যাটসম্যানদের পারদর্শিতায় ২ উইকেট হারিয়েই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড। এতে করে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

উল্লেখ্য, ট্রেন্ট বোল্টের খেলোয়াড়ি জীবনে সাফল্যের অন্ত নেই। ৯১টি ওয়ানডে ম্যাচে দ্রুতগতির বোলে শিকার করেছেন ১৬৮টি উইকেট, ৭১ টেস্টে ২৮১ উইকেট এবং ৩৪ টি-টোয়েন্টিতে ৪৬টি উইকেট।

এছাড়াও বিশ্বের সেরা ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট আই.পি.এল এর ৪৮ ম্যাচে শিকার করেছেন ৬৩টি উইকেট। 

প্রায় ৩৯ বছর বয়সী ট্রেন্ট বোল্ট দলের হয়ে খেলছেন বহুদিন ধরে, মাঠ কাঁপিয়েছেন স্বগৌরবে। দর্শক এবং শুভানুধ্যায়ীদের প্রত্যাশা বার্ধক্যের গন্ডিতে বাঁধা না পড়ুক এ গতিদানব, টিকে থাকুক নিউজিল্যান্ডের সেরা ব্রহ্মাস্ত্র হিসেবে। 

মন্তব্য লিখুন :