চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আয়োজক হতে চায় বাংলাদেশ

আইসিসির ভবিষ্যৎ কর্মসূচির পরের চক্রে আছে দুটি ওয়ানডে এবং চারটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এই আসরগুলোর কোনো একটির একক আয়োজক হওয়ার ইচ্ছা থাকলেও অবকাঠামোর ঘাটতির কারণে আবার পিছিয়েও গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে পরের চক্রে দুটি আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির একটির আয়োজক হওয়া সম্ভব বলেও মনে করছে তারা।

২০২৫ ও ২০২৯ সালে অনুষ্ঠেয় আট দলের এই দুই আসরের একটির আয়োজনের দায়িত্ব পেতে বিসিবি 'বিড' করবে বলে জানিয়েছেন এর সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। মঙ্গলবার বোর্ডের পরিচালনা পর্ষদের সভা শেষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের তুলনায় চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আয়োজক হওয়া কেন তুলনামূলক সহজ, সেই বাস্তবতাই তুলে ধরেছেন পাপন।

পাপন বলেন, 'ওয়ানডে বিশ্বকাপ এককভাবে করতে গেলে পুরোদস্তুর ১০টি ভেন্যু লাগবে, যা আমাদের নেই। আবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজন করতে গেলেও লাগবে আটটি স্টেডিয়াম। তা-ও আমাদের নেই। তবে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি এককভাবে আয়োজনের সক্ষমতা আমাদের রয়েছে। তাই আমরা ঠিক করেছি, এর আয়োজক হওয়ার লড়াইয়ে আমরা অংশ নেব। উপমহাদেশে ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা আছে। তাদের কারো সঙ্গে যৌথভাবে বিশ্বকাপ আয়োজন করা যেতে পারে।'

মন্তব্য লিখুন :