‘বাংলাদেশ টাইগার্স’ নামে ছায়া জাতীয় দল

জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বিকল্প ক্রিকেটার তৈরি রাখতে বাংলাদেশ টাইগার্স নামক ছায়া জাতীয় দল গঠন করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যেখানে ক্রিকেটারদের বছরজুড়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে জাতীয় দলের জন্য প্রস্তুত করা হবে।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) বোর্ড সভা শেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ঘোষণা দেন, জাতীয় দলের আদলে ‘বাংলাদেশ টাইগার্স’ নামে একটি ছায়া দল তৈরি করা হবে। তবে সেই দলের কার্যক্রম কি হবে বা কবে থেকে শুরু হবে সেটি পরিষ্কার করেননি। আজ (বুধবার) জানা গেল বিস্তারিত। এই দল তৈরিতে সম্মতি দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের তিন ফরম্যাটের তিনজন অধিনায়ক।

আজ (১৬ জুন) মিরপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা ডিপিএল শেষ হওয়ার পরপরই এই প্রোগ্রাম শুরু করতে চাই। আমাদের উদ্দেশ্য হলো এখান থেকে যেন প্রস্তুত হয়ে ক্রিকেটাররা জাতীয় দলে যেতে পারে। তিন অধিনায়ক এতে সম্মতি জানিয়েছেন। তামিম, রিয়াদ, মুমিনুলের সাথে এ নিয়ে আমার কথা হয়েছে। তারা খুশি এবং নিজেদের পরামর্শ দিয়েছে। আমাদের কোন কোন জায়গা নিয়ে কাজ করতে হবে তারা বলতে পারবে।’

প্রশ্ন উঠেছে ‘এ’ দল থাকতে ছায়া দলের প্রয়োজন কেন? এর সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যাও দিয়েছেন কাজী ইমান। জানিয়েছেন, স্থানীয় কোচ দিয়ে পরিচালনা করা হবে এই কর্মসূচি।

সিসিডিএম চেয়ারম্যান বলেন, ‘এই প্রোগ্রাম কিন্তু সারা বছর চলবে। এ দল সাধারণত কোনো সিরিজ বা সফরের আগে কাজ করে। সবসময় সিরিজ আয়োজনও সহজ হয় না, বড় চ্যালেঞ্জ থাকে। করোনার কারণে এখন সব অনেক কঠিন হয়ে গেছে। কিন্তু এটা ইমরুল, সাব্বির, বিজয়, নাসির, শফিউলদের মত খেলোয়াড়দের জায়গা। তারা কিন্তু এখন অনূর্ধ্ব-১৯ বা এইচপি দলে নেই। তাদের খেয়াল রাখার জন্যই এই বাংলাদেশ টাইগার।’

ইনাম আরও বলেন, ‘মিঠুনের মত একজন খেলোয়াড় এত বছর দলে থেকে মাঝখানে ছিল না, কিন্তু সে দলে কামব্যাক করেছে। তুষার ইমরানের মতো ক্রিকেটারকে নিয়ে মিডিয়া থেকে অনেক প্রশ্ন হয়, সে কেন জাতীয় দলে আসছে না? পাঁচ বছর আগে এই প্রোগ্রাম থাকলে হয়তো তার ফিটনেস ও অন্যান্য ব্যাপার নিয়ে কাজ করলে জাতীয় দলে বিবেচ্য হতো।’

মন্তব্য লিখুন :