সৌম্যতে নয় তাইজুলে আস্থা, নান্নুর ব্যাখ্যা

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে তিনি দলে ছিলেন। তবে কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। এবার জিম্বাবুয়ে সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে দলেই জায়গা পাননি সৌম্য সরকার।

কেন এ বাঁ-হাতি উইলোবাজকে বিবেচনায় আনা হলো না? সে প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, টিম ম্যানেজমেন্ট একজন বাড়তি বাঁ-হাতি স্পিনার দলে চেয়েছে, তাই সৌম্যকে রাখা যায়নি।

এ সম্পর্কে প্রধান নির্বাচকের ব্যাখ্যা, ‘এখানে আমরা ছোট একটা পরিবর্তন এনেছি। টিম ম্যানেজমেন্টের একটা চাওয়া ছিল, বাড়তি একজন বাঁ-হাতি স্পিনার দেওয়ার। সেটা চিন্তা করে বাঁ-হাতি স্পিনার হিসেবে তাইজুলকে নেওয়া হয়েছে। যার কারণে, সেখান থেকে সৌম্যকে আমাদের সরিয়ে দিতে হয়েছে। তার সঙ্গে ব্যাটসম্যান হিসেবে সোহানকে এনেছি। মিডল অর্ডারের ব্যাটসম্যান হিসেবেই।’

অনেকদিন পর নুরুল হাসান সোহানকে তিন ফরম্যাটেই নেয়া হলো কী চিন্তায়? কোন বিবেচনায়? নান্নুর ব্যাখ্যা, ‘সাম্প্রতিক পারফরমেন্সটাই সোহানের আবার দলে ফেরার মূল কারণ।’

এ সম্পর্কে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স দেখেন। আমরা ওকে শ্রীলঙ্কা সফরে দলের সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলাম। সেখানে টিম ম্যানেজমেন্টও যথেষ্ট খুশি ছিল ওর স্কিল সেশন, ওর অনুশীলন সেশনগুলোতে। আমরা নির্বাচক প্যানেলও ওর পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট। বর্তমান ফর্ম ও সব কিছু মিলিয়ে বিবেচনা করলাম ওকে অবশ্যই দলে নেওয়ার দরকার আছে।’

দলে একাধিক উইকেটকিপার আছেন। মিডল অর্ডারে ব্যাটসম্যানও আছেন কয়েকজন। সোহান কী জায়গা পাবে একাদশে? তাকে কী খেলানো হবে?

প্রধান নির্বাচকের ব্যাখ্যা, ‘ওখানে টিম ম্যানেজমেন্ট গিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। কন্ডিশন খুব গুরুত্বপূর্ণ। তবে আমরা আশাবাদী, আত্মবিশ্বাসী ওকে কোনো একটা জায়গায় খেলানো হবে।’

মন্তব্য লিখুন :